শাহেদ মিজান, সিবিএন:
অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার অভিযোগপত্র (চার্জসীট) গ্রহণ করেছেন আদালত। আজ সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে আদালত এই অভিযোগপত্রটি গ্রহণ করেছেন। অভিযোগপত্র গ্রহণ করে অভিযোগপত্রভুক্ত আসামী পলাতক এএসআই সাগর দেবের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। কক্সবাজার সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালত এই আদেশ দিয়েছেন।
পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপসহ ১৫জনকে অভিযুক্ত করে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার অভিযোগপত্র (চার্জসীট) জমা করেছিলেন তদন্ত কর্মকর্তা। সেই অভিযোগপত্রটি আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রহণ করেছেন আদালত। অভিযোগপত্র গ্রহণ করে অভিযোগপত্রভুক্ত পলাতক আসামী সাগর দেবের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাবের সহকারী পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, মামলা রুজুর অভিযোগপত্র জমা করা হয়েছে। অভিযোগপত্রে তদন্ত সাপেক্ষে ১৫ জনকে অভিযুুুুক্ত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান। এরপর ৫ আগস্ট এ ঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার আদালতে মামলা করেন সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস। র‌্যাবকে মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয়। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, পরিদর্শক লিয়াক আলীসহ আট পুলিশ সদস্য এবং এপিবিএন এর তিন সদস্য ও স্থানীয় তিন ব্যক্তি। অন্য আসামী এএসআই সাগর দেব এখন পযন্ত পলাতক রয়েছেন। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে তাদের মধ্যে ওসি প্রদীপ কুমার দাশ এবং তার প্রধান সহযোগী রুবেল শর্মা ছাড়া প্রধান অভিযুক্ত পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ ১২ জন আসামি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •