মোঃ কাউছার ঊদ্দীন শরীফ, ঈদগাঁও :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও বাস স্টেশন, বাজার সহ বিভিন্ন অলিতে গলিতে প্রতিনিয়ত চোখে পড়ে শিশু ও অদক্ষ চালকদের হাতে নানান ধরনের যানবাহন, এসব অদক্ষ চালকের কারণে যে কোন সময় দুর্ঘটনার আশংকা।

জানা যায়, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁও বাস স্টেশন এলাকায় মহাসড়কের দুইপাশে বিভিন্ন স্থানে রয়েছে অটোরিক্সা, টমটম নামের যানবাহনের অধিকাংশ চালক লাইসেন্স বিহীন শিশু ও কিশোর বললেই চলে। এতে বিভিন্ন বাজার এলাকায় নির্দিষ্ট গাড়ি পাকিংয়ের ব্যবস্থা না থাকার ফলে যত্রতত্র স্থানে যানযটের সৃষ্টি হচ্ছে ।এ সব কিছু প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট সকলে দেখেও না দেখার ভান করে চলছে। ফলে নিত্যদিনের যানজটের দুর্ভোগ পিছু ছাড়ছে না ঈদগাঁওবাসীর।অদক্ষ চালক-শিশুরা ঈদগাঁও, ইসলামপুর, ইসলামাবাদ, পোকখালী, জালালাবাদ চৌফলন্ডী ইউনিয়ন গুলির বিভিন্ন গ্রামীন সড়কের হরদম চলাচল করছে হরেক রকম ব্রান্ডের টমটম ও অটোরিক্সাসহ নানান ধরনের যানবাহন।

মাঝে মধ্যে পুলিশ অভিযান চালালেও পরক্ষনে একই কায়দায় এসে পড়ে এসব চালকরা। সেই সাথে ঈদগাঁও বাজারের বিভিন্ন অলিতে গলিতে এই সব চালকদের কারণে যত্রতত্র স্থানে যানযটসহ দুর্ঘটনা বাড়ছে ।
শিশু টমটম চালক সাহাব উদ্দীন, কামাল , মামুন মিয়া, একারাম, জসিমের সাথে কথা হলে তারা বলেন, পরিবারের আর্থিক অবস্থার কারণে লেখাপড়া ছেড়ে দিয়ে মা, বাবা ভাই, বোনদের ভরন পোষনের লক্ষে এই যাবাহন চালানোর কাজে নিয়োজিত হয়েছি।

সচেতন মহলের দাবি, এসব ঝুঁকিপুর্ণ কাজে অল্প বয়সি ছেলেদেরকে পরিবারে কর্তারা যদি এই ভাবে নিজেদের ছেলেদেরকে রাস্থায় নামিয়ে দেয়, তাদের ভবিষ্যতে অন্ধাকার বলে মন্তব্য করেন। পাশাপাশি এসব কোমল মতি অল্প বয়সি ছেলেদের যদি যানবাহন চালানোর কাজ থেকে পিরিয়ে এনে পড়ালেখা দিকে মনোযোগী বা অন্যকোন টেকনিক্যাল কাজ শিখানো হয় তাহলে তাদের ভবিষ্যৎ উজ্জল ও সুন্দর হবে ।

এবিষয়ে ঈদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ আলম এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, অনেক অদক্ষ চালকদের গাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে জব্দ করা হয়েছিল।জব্দকৃত গাড়ি গুলো ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য মালিক পক্ষকে নিয়ে এসে শিশুদের কে গাড়ি না দেওয়ার জন্য লিখিত ডকুমেন্টস নেওয়ার পরেও শিশু চালকের গাড়ি দিয়েছি। ঈদগাঁও বাস স্টেশনের কর্মরত ট্রাফিক পুলিশেরা অদক্ষ চালকদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করলে ঈদগাঁও অদক্ষ চালক খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে দাবি করেন স্থানীয় লোকজন।

ঈদগাঁওতে কর্মরত ট্রাফিক পুলিশের টিআই পলাশ বলেন, আমরা লাইসেন্স বিহীন গাড়ি ও অদক্ষ চালকদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রেখেছি এরকম কোন শিশু বা অদক্ষ ড্রাইভার কাউকে পেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •