cbn  

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া:
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্কে জেব্রা দম্পতি সুমন-সুমানার ঘরে এসেছে নতুন অতিথি। অবশ্য পার্কের বেস্টনীতে সুমনের দ্বিতীয় ঘরণী আছে আরও একজন। তাঁর চম্পা। এখনো চম্পার ঘরে আসেনি কোন অতিথি। শনিবার ভোরে পার্কের বেস্টনীতে সুমন-সুমানা জন্ম দিয়েছেন একটি পুরুষ (শাবক)। প্রথমবারের মতো ডুলাহাজারা সাফারি পার্কে জেব্রার পরিবারের শাবক জন্ম দেয়ার ঘটনা ঘটল। নতুন অতিথিসহ বর্তমানে পার্কে জেব্রার সংখ্যা দাঁড়াল চারটি।

জন্মের কিছু সময় পর থেকেই মা জেব্রা ও শাবকটিকে বেষ্টনীতে বিচরণ করতে দেখা গেছে। নতুন শাবকের আগমনে জেব্রা পরিবার ও পার্ক কর্তৃপক্ষের মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে।

ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের সহকারি তত্ত্বাবধায়ক মাজাহারুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, বর্তমানে মা জেব্রা ও শাবক উভয়েই সুস্থ রয়েছে। অন্য জেব্রার সঙ্গে বেস্টনীর বিভিন্ন অংশ ঘুরে বেড়াচ্ছে। মা জেব্রার পুষ্টিমানের কথা বিবেচনায় খাদ্যে পরিবর্তন আনা হয়েছে। জেব্রার প্রধান খাদ্য ঘাস। বর্তমানে ঘাসের পাশাপাশি মা জেব্রাকে ছোলা, গাজর ও ভূষি দেয়া হচ্ছে।

সাফারি পার্কের নিরাপত্তাকর্মী রাজিব কান্তি দে বলেন, জেব্রার পরিবারে জন্ম নেয়া নতুন অতিথি পুরুষ শাবক। মা জেব্রা সুমনা ও নতুন অতিথি ওই শাবককে নিবিড় পরিচর্যা করা হচ্ছে। অন্তত একঘন্টা পরপর মা ও শাবককে বেস্টনীতে গিয়ে দেখাশুনা করা হচ্ছে। যাতে তাদের কোন ধরণের সমস্যা হচ্ছে কী সেই বিষয়টিও নজরে রাখা হচ্ছে।

জানতে চাইলে ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের তত্তাবধায়ক ও বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ চট্টগ্রামের বিভাগীয় কর্মকর্তা (ডিএফও) আবু নাসের মো: ইয়াছিন নেওয়াজ বলেন, শনিবার সকালে খবর আসে পার্কে জেব্রা দম্পতি সুমন-সুমনার ঘরে নতুন অতিথি এসেছে। বিজয়ে এই মাসে নতুন অতিথি জন্ম হওয়ায় তার নাম দেয়া হয়েছে বিজয়ের “চমক”। মা ও শাকক ভাল আছে। নতুন শাবকের পদচারণা পার্কে দর্শনার্থীদের আরো আনন্দ জোগাবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •