টেকনাফ সংবাদদাতাঃ
মেয়াদ উত্তীর্ণ ও সাংগঠনিক স্থবিরতার কারণ দেখিয়ে প্রায় দুই বছর আগে টেকনাফ উপজেলা জাতীয় শ্রমিকলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়।
কিন্তু সেই বিলুপ্ত কমিটির নেতৃবৃন্দ এখনো পুরনো পদ-পদবি ব্যবহার করছেন, সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ তৃণমূল নেতাকর্মীদের।
মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) বেলা দেড়টার দিকে এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারী মুঠোফোনে বলেন, কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া ও সাংগঠনিক স্থবিরতার কারণে জেলা কমিটির জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক ২০১৯ সালে ২৪ জানুয়ারি টেকনাফ উপজেলা শ্রমিক লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।
এরপর থেকে এখনো পর্যন্ত নতুন কমিটি দেওয়া হয়নি। এরপরও কেউ সাংগঠনিক পদপদবীর ব্যবহার করলে তার দায়ভার আমরা নেব না।
তিনি বলেন, বিলুপ্ত কমিটিতে জিয়াউর রহমান জিয়া সভাপতি, ফরিদ আলম জয় সাধারণ সম্পাদক ও আব্দুল গনি সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।
উপযুক্ত নেতৃত্ব নিয়েই সংগঠনকে গোছালো করা হবে। বিতর্কিত কোন লোকের হাতে শ্রমিক লীগের কমিটি দেওয়া হবে না বলে জানান শফিউল্লাহ আনসারী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •