সিবিএন ডেস্ক:
করোনাভাইরাস কীভাবে ফুসফুসের ওপর প্রভাব ফেলে সেই বিষয়ে গবেষণা করছে যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়।

গবেষণায় বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় ফুসফুস। এটি কীভাবে ফুসফুসের ওপর প্রভাব ফেলে এবং ক্ষতিসাধন করে তার খোঁজ দিয়েছেন তারা। গবেষকদের আশা, এই গবেষণার ফল কোভিডের চিকিৎসায় সাহায্য করবে।

মলিকিউলার জার্নাল গবেষণা পত্রে প্রকাশিত প্রদিবেদনে জানা গেছে, নমুনায় উপস্থিত অণুগুলোর চরিত্র বুঝতে ‘মাস স্পেক্ট্রোমেট্রি’ প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে, সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের সংক্রমণে ফুসফুসের কোষে উপস্থিত প্রোটিন এবং অণুগুলোর পথ বদলে যায়।

গবেষকরা বলছেন, কোষের মধ্যে প্রোটিনের কার্যকারিতা নিয়ন্ত্রণ করে ‘ফসফোরিলেশন’ নামক প্রোটিনের এক দশা। সুস্থ কোষের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন এবং তার ফসফোরিলেশন দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু সার্স-কোভ-২ আক্রমণ করলেই ঘটে বদল। ফুসফুসের কোষে প্রচুর পরিমাণে ফসফোরিলেশন ঘটতে থাকে। ফলে প্রোটিনের পরিমাণে অস্বাভাবিক পরিবর্তন হয়। এই পরিবর্তনের ফলেই প্রচুর পরিমাণে নিজেদের সংখ্যা বাড়িয়ে দেয় ভাইরাসটি এবং ক্রমে কোষগুলোকে ধ্বংস করা শুরু করে।

গবেষকরা জানিয়েছেন, ইতোমধ্যেই অন্য রোগে ব্যবহৃত ১৮টি অনুমোদিত ওষুধ রয়েছে, যা কোভিড-১৯ চিকিৎসাতেও ব্যবহার করা যেতে পারে। ওষুধগুলো কতটা শক্তিশালী তা জানতে অবশ্য গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে বলে জানানো হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •