আমিনুল ইসলাম:
কক্সবাজার পুলিশের কর্মতৎপরতায় মাত্র ২০ মিনিটে ছিনতাইকারীর কবলে পড়া এক মেধাবী ছাত্রের কষ্টার্জিত টাকা ফিরে পেয়েছেন। পরিবারের খরচ চালাতে ফেরিওয়ালা হিসেবে কক্সবাজারে কাজ করছিলেন ছিনতাইয়ের শিকার হওয়া উক্ত শিক্ষার্থী।

রবিবার (১৩ ডিসেম্বর) কক্সবাজার শহর পুলিশ ফাঁড়ির সামনে দাঁড়িয়ে কাঁদতে কাঁদতে এক ফেরিওয়ালাকে যেতে দেখেন উক্ত ফাঁড়ির ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন। ফেরিওয়ালাকে ডেকে কান্নার কারণ জিজ্ঞেস করলে জানা যায়, বই-পুস্তক ও অন্যান্য শিক্ষাসামগ্রী ক্রয় এবং সংসার খরচ মেটাতে কক্সবাজার আসেন চাঁপাইনবাগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত আদিনা সরকারি কলেজ এর প্রাণিবিদ্যা বিভাগের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র। কক্সবাজারে ফেরি করে প্লাস্টিক সামগ্রী বিক্রি করছেন বেশ কিছুদিন।

উক্ত ফেরিওয়ালা (শিক্ষার্থী) নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে শিকদার বাজার এলাকায় আসলে এক ছিনতাইকারী তার কষ্টার্জিত সকল টাকা কেঁড়ে নেয় এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তাড়িয়ে দেয়। গত কয়েকদিনের এই আয় দিয়ে চেয়েছিলেন মা বাবার কাছে পাঠাবেন কিন্তু তা ছিনতাইকারীর কিবলে পড়ে আর সম্ভব না হওয়ায় সে কান্না করছিল।

সংসার খরচ মেটাতে চাঁপাইনবাগঞ্জ থেকে কক্সবাজার এসে ফেরি করে প্লাস্টিক সামগ্রী বিক্রি করা অর্জিত টাকা ছিনতাইকারীর কাছ থেকে উদ্ধার করতে নির্দেশ দেন কক্সবাজারে সদ্য যোগদান করা পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন।

নির্দেশনা পেয়ে তৎক্ষনাৎ এসআই জিয়াউর রহমান জিয়া, টিএসআই নজরুল ইসলাম, এএসআই রিয়াজ এবং কনস্টেবল মনির এর সমন্বয়ে গঠিত টীম ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করতে মাঠে নেমে পড়েন।

মাত্র ২০ মিনিটের ব্যবধানে ছিনতাইকারীকে আটক ও ১০০০টাকা উদ্ধার করে তারা।

আটকের পর জানা যায়, ছিনতাইকারী সিকদার বাজার এলাকার সিরাজ ড্রাইভার এর ছেলে গুরাইয়া। কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন এর উপর সন্ত্রাসী হামলা মামলা সহ আরও অনেক মামলার এজাহারভূক্ত আসামী।

এদিক কুখ্যাত সন্ত্রাসী ও ছিনতাইকারী গুরাইয়া গ্রেফতার হওয়ায় কক্সবাজার শহরের রুমালিয়ারছড়া এলাকাবাসী ধন্যবাদ জানিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •