ওসমান আবির :

টেকনাফের সীমান্ত এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পাচারের সময় মালিক বিহীন ১ লাখ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন।যার আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি টাকা প্রায়।গতকাল রাতে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালীর নাফ নদীর তীর সংলগ্ন এলাকা থেকে ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়।

শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার সময় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে.কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খানের।

ফয়সল হাসান খান বলেন, শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবির সদস্যরা জানতে পারে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী এলাকার নাফ নদীর তীর সংলগ্ন শামসু উদ্দীনের মাছের ঘের দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে প্রবেশ হতে পারে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে খারাংখালী বিওপির একটি বিশেষ টহলদল উক্ত এলাকায় গমন করে গোপনে অবস্থান করেন।কিছুক্ষণ পর আনুমানিক রাত সাড়ে ১১টার সময় ৬/৭ জন পাচারকারী শামসু উদ্দীনের মৎস ঘেরের পশ্চিম দিক দিয়ে সামনের দিকে আসতে থাকলে অবস্থানরত বিজিবির সদস্যরা তাদের আটক করার জন্য চ্যালেঞ্জ করে।এমন সময় মাদক পাচারকারীরা দূর থেকে টহলদলের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘন কুয়াশা ও অন্ধকারের সুযোগে পালিয়ে যায়।পরবর্তীতে টহলদলের সদস্যরা বর্ণিত স্থানে তল্লাশী করে ৪টি ছোট ছোট প্লাস্টিকের বস্তা উদ্ধার করে।এরপর উদ্ধার করা বস্তাগুলোর ভিতর থেকে ১ লাখ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে।

উদ্ধারকৃত ইয়াবাগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে, যা পরবর্তীতে উদ্ধর্তন কর্মকর্তা,মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি ও স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে বলে জানান লে.কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •