মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কুতুবদিয়া। কক্সবাজার জেলার একটি দ্বীপ উপজেলা। গত ২৮ নভেম্বর জেলা প্রশাসক হিসাবে রুটিন ভিজিটে গিয়েছিলেন-ডিসি মোঃ কামাল হোসেন।
কুতুবদিয়া উপজেলা পরিদর্শনে গিয়ে তিনি জানতে পারেন, সেখানকার অনেক সুবিধা বঞ্চিত শিশু-কিশোরের কোনদিন তাদের প্রিয় জোলা শহর দেখা হয়নি।

‘মানবিক জেলা প্রশাসক’ হিসাবে খ্যাতি পাওয়া জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন সেদিন সুবিধা বঞ্চিত ন্যুনতম ১০০ শিক্ষার্থীকে কক্সবাজার জেলা শহর বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন। যেমন ঘোষণা, তেমন কাজ।
সে ঘোষণার প্রথম দফায় গত সপ্তাহে কুতুবদিয়ার ৩০ জন সুবিধা বঞ্চিত শিশু-কিশোরীকে কক্সবাজার জেলা শহর বেড়াতে এনেছিলেন।

দ্বিতীয় দফায় বৃহস্পতিবার ১০ ডিসেম্বর আরো ৩৫ জন সুবিধা বঞ্চিত শিশু- কিশোরের কক্সবাজার দেখা হল। তারা সবাই কুতুবদিয়া দ্বীপের বাসিন্দা। এই প্রথম তারা কক্সবাজার জেলা সদর দেখেছে-কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের বদান্যতায়। বৃহস্পতিবার রাতে এসব শিক্ষার্থীদের নিয়ে তারকা হোটেল ওশ্যান প্যারাডাইসে এক নৈশভোজে অংশ নেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। এসময় জেলা প্রশাসক তাদের উদ্দেশ্য বলেন, মানুষ স্বপ্ন দেখেই বেঁচে থাকে। তোমাদেরও স্বপ্ন দেখতে হবে। একদিন অবশ্যই স্বপ্ন পূরণ হবে।

নৈশভোজ অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. শাজাহান আলী, সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহমেদ, দৈনিক প্রথম আলো’র সাংবাদিক আবদুল কুদ্দুস রানা, ৭১ টিভি’র কক্সবাজার প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম মিন্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। নৈশভোজের পর সবাই জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের সাথে ফটোসেশানে মিলিত হন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •