প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে উল্টো পথে মোটরসাইকেল চালানোর প্রতিবাদ করায় বিচারকের উপর হামলার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে কক্সবাজার আইন কলেজ প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদ।

প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদের পক্ষে এডভোকেট দীপংকর বড়ুয়া পিন্টু ও এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী ১০ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার প্রদত্ত এক প্রতিবাদ লিপিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, চট্টগ্রামের মহানগর যুগ্ম দায়রা জজ-৫ মোহাম্মদ জহির উদ্দিন’র উপর হামলা প্রমাণ করে বিচার বিভাগের বিজ্ঞ সদস্যরা পর্যাপ্ত নিরাপত্তা পাচ্ছেন না। যে নিরাপত্তা দেওয়া স্বাধীন বিচার বিভাগের জন্য অপরিহার্য ছিলো।

আইনজীবীদ্বয় এই হামলার নিন্দা জানিয়ে অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিজ্ঞ বিচারকদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, গত ৯ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত এলাকায় যুগ্ন জেলা জজ মোহাম্মদ জহির উদ্দিনের উপর দুর্বৃত্তরা হামলা করে। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন আলী আকবর এবং হাসান আলী জিসান নামের দু’জনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে।
এদের মধ্যে আলী আকবর যুবলীগ কর্মী মহিউদ্দিন হত্যা মামলার আসামি। তার বাবা হাজী ইকবালও একই হত্যা মামলার আসামি।

চট্টগ্রাম বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী ইকবালকে দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকান্ডের জন্য ১০ বছর আগে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

পতেঙ্গা থানা পুলিশ ৯ ডিসেম্বর বিকেলের ঘটনার বিষয়ে বলেন, আটক দু’জন আউটার রিং রোডে উল্টো পথে মটরসাইকেল চালিয়ে আসেন। এসময় জজ সাহেব ওই পথ দিয়ে গাড়ি নিয়ে যাচ্ছিলেন।আটক দু’জনের মটরসাইকেল তার গাড়ির সামনে পড়লে তিনি উল্টো পথে বেপরোয়া গাড়ি চালানোর বিষয়ে জানতে চান। এসময় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে জজ সাহেবের উপর নগ্ন হামলা চালায়। হামলায় ওই গাড়িতে থাকা চট্টগ্রাম মহানগরের পঞ্চম যুগ্ম জেলা জজ জহির উদ্দিন হাতে আঘাত পান বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। পরে ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্থানীয়রা হামলাকারীদের আটক করে।

২০১৮ সালের ২৬ মার্চ দুপুরে চট্টগ্রামের হালিশহর মেহের আফজল উচ্চ বিদ্যালয়ের পুর্ণমিলনী নিয়ে প্রধান শিক্ষকের কক্ষে বৈঠক চলাকালে খুন হন-যুবলীগ কর্মী মহিউদ্দিন। উক্ত হত্যা মামলায় হাজী ইকবাল ও তার ছেলে আলী আকবর আসামি ছিলেন। তখন আলী আকবর ঢাকা থেকে গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন। পরে সে জামিনে মুক্তি পায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •