সিবিএন ডেস্ক:
হঠাৎ করে টুইটারে সবাইকে আনফলো করে দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এর মধ্যে রয়েছেন তার সাবেক স্ত্রী জেমাইমা গোল্ডস্মিথের টুইটার হ্যান্ডলও। আর তারপরই ট্রোলিংয়ের শিকার হতে হলো তাকে।

বাকিদের আনফলো করলেও জেমাইমাকে অন্তত ফলো করা উচিত ছিল, এমন কটাক্ষ করেছেন কেউ কেউ। কেউ আবার নওয়াজ শরিফের প্রসঙ্গ তুলে এনে ট্রোল করেছেন ইমরানকে।

গত সোমবার (৭ ডিসেম্বর) রাতে হঠাৎই দেখা যায়, টুইটারে কাউকেই আর ফলো করছেন না পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। এই মুহূর্তে ইমরান খানকে ফলো করেন প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ ফলোয়ার। ২০১০ সালের মার্চ মাস থেকে তিনি টুইটারে আছেন। তাকে ট্রোল করার সময় নেটিজেনরা তুলেছেন নওয়াজ শরিফের প্রসঙ্গও।
একজন কটাক্ষ করে লিখেছেন, ইমরান খান নওয়াজ শরিফের টুইটারের টাইমলাইনে গিয়ে দেখতে পেয়েছেন নওয়াজ কাউকে ফলো করেন না। এতেই রেগে গিয়ে নিজের টাইমলাইনে ফিরে গিয়ে সকলকে আনফলো করে দিয়েছেন ইমরান। এমনকী সাবেক স্ত্রীকেও।
তবে পরে আবার দেখা গেছে, মাত্র দু’টি অ্যাকাউন্টকে এখনও ফলো করছেন তিনি। তার মধ্যে একটি সংবাদসংস্থা পিটিআইয়ের অ্যাকাউন্ট। অন্যটি তার মা শউকত খানমের নামে নামাঙ্কিত ক্যান্সার হাসপাতাল ও গবেষণা কেন্দ্রের টুইটার হ্যান্ডল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •