ফাইল ছবি

ইমাম খাইর, সিবিএনঃ
সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে চিকিৎসার জন্য টেকনাফে যাওয়ার পথে ট্রলারে ছটফট করতে করতে মৃত্যুরকোলে ঢলে পড়লেন কুলসুমা বেগম (২৩) নামের গর্ভবতী নারী। তিনি দ্বীপের বাসিন্দা আব্দুস শুকুরের স্ত্রী।

মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) সকাল ৭ টার দিকে ঘটনাটি ঘটে।

মৃত্যুর সংবাদটি জানিয়েছেন টেকনাফের বাসিন্দা ও সংবাদকর্মী জাবেদ ইকবাল চৌধুরী।

তিনি জানান, কুলসুমা গর্ভবতী অবস্থায় ছিলেন। তার শারীরিক অবস্থা খারাপ দেখা গেলে জরুরি ভিত্তিতে টেকনাফ নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। মাঝপথে (সমুদ্রে) সকাল ৭ টায় মৃত্যুরকোলে ঢলে পড়েন।

কুলসুমা সেন্টমার্টিনের বাসিন্দা লম্বা ঘরের জামাল মিস্ত্রির কন্যা।

দ্বীপের মেম্বার হাবিব খান অাক্ষেপসুরে জানান, সেন্টমার্টিন দ্বীপে হাসপাতাল আছে ডাক্তার নাই। রোগী আছে চিকিৎসা নাই। বেহাল অবস্থায় দ্বীপবাসী। ভাল চিকিৎসার জন্য টেকনাফ যেতে হয়। চিকিৎসার জন্য যাওয়ার পথে প্রায় সময় সমুদ্রের মাঝে অনেক প্রাণও ঝরে যায়।

তিনি জানান, এভাবেই চলছে সেন্টমার্টিনবাসীর জীবন। না পাচ্ছে ভাল কোন চিকিৎসা।

দ্বীপের বাসিন্দা আব্দুল মালেকের প্রশ্ন, চিকিৎসাখাতে আর কত অবহেলা? সমাধান কি কখনও মিলবে না?

জীবনের রক্ষার প্রয়োজনে সরকারে কাছ থেকে ভাল ডাক্তার ও ভাল চিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবি দ্বীপের বাসিন্দাদের।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •