আলমগীর মানিক,রাঙামাটি:
“শেখ হাসিনার বারতা,নারী-পুরুষ সমতা” এই প্রতিপাদ্য নিয়ে পার্বত্য জেলা রাঙামাটির নানিয়ারচরে নারী জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (৭ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ মাঠে এই মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। নথি সাইনিং পাওয়ার, পরিপত্রের ৩% বরাদ্দ এবং কেন্দ্রীয় দপ্তর স্থাপন এই তিন দফা দাবিতে সারাদেশের ন্যায় নানিয়ারচর উপজেলায়ও নারী জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।
মানববন্ধন শেষে উপজেলা পরিষদ হল রুমে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, “নারীর ক্ষমতায়ন লক্ষ্যে সংসদ থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে সরকার নারী প্রতিনিধি নিশ্চিত করেছেন। তৃণমূল পর্যায়ে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে হলে নারী জনপ্রতিনিধিদের দ্বাবি সমুহ বাস্তবায়ন করতে হবে। বক্তারা আরো বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত হলে, নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও হত্যা রোধ করে সার্বিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে হবে। জনবহুল বাংলাদেশে অর্ধেকের বেশি নারী। নারীর ক্ষমতায়ন বর্তমান সরকারের মূল লক্ষ্য। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে ইতোমধ্যেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ২০১৩ সালে নারী উন্নয়ন ফোরাম প্রতিষ্ঠা করা হলেও এখনো পর্যন্ত মূল লক্ষ্য অর্জন সম্ভব হয়নি। তাই নিজেদের অধিকার আদায়ে মাঠে নামতে বাধ্য হয়েছে সন্মানিত নারী জনপ্রতিনিধিরা। এই আন্দোলনের অংশ হিসেবেই নারী উন্নয়ন ফোরাম ৩টি দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আন্দোলন করে আসছে। যার ধারাবাহিকতায় গত ১লা সেপ্টেম্বর সারাদেশে ইউএনওদেরকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
এছাড়া গত ২২শে নভেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাব ঢাকায় মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। সে প্রেক্ষিতে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ৭ ডিসেম্বর সারাদেশে উপজেলা প্রাঙ্গণে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উক্ত মানববন্ধনে নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আসমা আক্তারের সভাপতিত্বে নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নুর জামাল হাওলাদার, নানিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাব্বির হোসেন, মহিলা ওয়ার্ড মেম্বার কুলসুম আক্তার এবং অনিতা চাকমা প্রমুখ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •