আরটিভি : অনিয়মের অভিযোগে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। আজ রোববার (০৬ ডিসেম্বর) চটভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। গত ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ওই নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ উঠে।
ইসি উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, অনিয়ম তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত গঠন করা হয়েছিল। কমিটি তদন্ত শেষে ইসির কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়। প্রতিবেদনে অনিয়ম হওয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় উপজেলা নির্বাচন বিধিমালা অনুযায়ী চরভদ্রাসন উপজেলার চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচন বাতিল করা হল। নতুন নির্বাচনের তারিখ পরবর্তীতে ঘোষণা করা হবে বলে জানানো হয় প্রজ্ঞাপনে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে ফরিদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান বলেন, নির্বাচন কমিশনারের নির্দেশক্রমে উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান নির্বাচন পরিচালনা কমিটি-২ অধিশাখা স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে নির্বাচন বাতিলের বিষয়টি জানানো হয়েছে।
গত ১০ অক্টোবর এ উপজেলা পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. কাউছার জয়ী হন। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আচরণ বিধি লংঘন ও প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে স্থানীয় সংসদ সদস্য মুজিবর রহমান চৌধুরী নিক্সনের বিরুদ্ধে মামলাও করে ইসি। নিক্সন চৌধুরীর বর্তমানে ইসির করা মামলায় থেকে জামিনে আছেন।
চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে আগের রাতে ব্যালটে সিলমারাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করে ইসির একটি কমিটি। নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার সাহা, নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক নূরুজ্জামান তালুকদার ও নির্বাচন কমিশনের উপসচিব মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরীর কমিটি এ নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ পায়। অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ায় চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বাতিল করলো ইসি।
ইতোমধ্যে দুই ধাপের পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে কমিশন। প্রথম ধাপে ২৮ ডিসেম্বর ২৫টি এবং দ্বিতীয় ধাপে ১৬ জানুয়ারি ৬১টি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ করবে কমিশন।
এছাড়া চলতি সপ্তাহে তৃতীয় ধাপের তফসিল হওয়ার কথা রয়েছে। এই ধাপে ৩০ জানুয়ারি এবং চতুর্থ বা শেষ ধাপে ১৩ ফেব্রুয়ারি ভোট করার কথা রয়েছে। ইসি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •