প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

৩০ লক্ষ শহীদ ও ২ লাখ মা- বোনের আত্মত্যাগের বিনিময়ে পাওয়া এই দেশে আবারো সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যসহ অন্যান্য ভাস্কর্য ও মূর্তি ভাঙার হুমকি এদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে অস্বীকার করা। ওই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী এদেশকে আবারো পাকিস্তান-আফগানিস্তান দেশে পরিণত করতে চায়। কুষ্টিয়ায় রাতের আঁধারে ওই দুর্বৃত্তরা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙ্গেছে, যারা এ ভাংচুরের সাথে সম্পৃক্ত ও ভাস্কর্য ভাঙ্গার হুমকিদাতাদের দ্রুত গ্রেফতার করতে হবে। সেই সাথে ধর্মভিত্তিক সাম্প্রদায়িক রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে। এদেশ হাছন-লালন ফকিরের দেশ, এ দেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেশ। ৫২ ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাঙালী জাতীয়তাবোধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার ভিত্তিতে এদেশ গড়ে উঠেছে। কোন অপশক্তি এ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার জায়গা থেকে এক বিন্দুও সরাতে পারবে না। যারা এই চেতনা নষ্ট করতে চেষ্টা করবে, তাদের প্রতিহত করা হবে।

রোববার (৬ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় কক্সবাজার পৌরসভা চত্বরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, কক্সবাজার আয়োজিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।

সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলনের সভাপতিত্বে ও সাংস্কৃতিক সংগঠক মনির মোবারক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় সদস্য নাট্য সংগঠক এড. তাপস রক্ষিত, জাসদ নেতা মোহাম্মদ হোসেন মাসু, নাট্য নির্দেশক স্বপন ভট্টাচার্য্য, নাট্য সংগঠক সুশান্ত পাল বাচ্চু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নজিবুল ইসলাম, খেলাঘর সংগঠক এম. জসিম উদ্দিন, সাংবাদিক দীপক শর্মা দীপ, খেলাঘর সংগঠক এবি সিদ্দিক খোকন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠী কক্সবাজার জেলা সংসদের সভাপতি খোরশেদ আলম, নাট্য কর্মী গিয়াস উদ্দিন, চিত্রশিল্পী অরণ্য শর্মা, সংবাদকর্মী নির্বাণ পাল, নাট্য কর্মী দেবু দাশ, প্রবাল দে, শাহানা মজুমদার চুমকী, ফাতেমা আক্তার শাহী, সাগর প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •