সিবিএন ডেস্ক:
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার মামলায় বিচারকের প্রতি অনাস্থা জানিয়েছেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামানের আদালতের প্রতি অনাস্থা দেন আইনজীবীরা। আদালত এ বিষয়ে শুনানির তারিখ ৬ ডিসেম্বর ধার্য করেছেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবীরা দাবি করেন, বৃহস্পতিবার আইন বহির্ভূতভাবে মামলার ৩৩ নং সাক্ষী সিআইডির এসআই রকিবুল হাসানের জবানবন্দি গ্রহণ করায় আদালতের নিরপেক্ষতা হারিয়েছেন। অত্র আদালতে আসামিদের ন্যায় বিচারের আশঙ্কা রয়েছে। এমতাবস্থায় মামলাটি অন্য আদালতে বদলির জন্য উচ্চ আদালতে আবেদন করা হবে।

এমতাবস্থায় মামলার বিচার কাজ মূলতবি রাখার আবেদন করেন আইনজীবীরা। এনিয়ে মামলাটিতে ৬০ জন সাক্ষীর মধ্যে ৩৯ জনের সাক্ষ্য শেষ হয়েছে।

এদিন মামলায় গ্রেফতার ২২ আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর ২৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেন ডিবি পরিদর্শক ওয়াহিদুজ্জামান।

চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলেন- মেহেদী হাসান রাসেল, অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মেহেদী হাসান রবিন, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, মুনতাসির আলম জেমি, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, মুজাহিদুর রহমান, মুহতাসিম ফুয়াদ, মনিরুজ্জামান মনির, আকাশ হোসেন, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মাজেদুর রহমান, শামীম বিল্লাহ, মোয়াজ আবু হুরায়রা, এ এস এম নাজমুস সাদাত, ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, অমিত সাহা, মিজানুর রহমান ওরফে মিজান, শামসুল আরেফিন রাফাত, মোর্শেদ অমত্য ইসলাম ও এস এম মাহমুদ সেতু।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •