রাজু দাশ, চকরিয়া:
কক্সবাজারের চকরিয়ায় বনভূমি রক্ষা করতে গিয়ে ভূমিদস্যুদের ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ২ অভয়ারণ্য বনবিট কর্মকর্তাসহ ৯জন বনকর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আজিজনগর বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য ও চকরিয়া উপজেলা হারবাং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য বিটের কর্মকর্তারা পশ্চিম ভিলেজার পাড়া ৯ নম্বর ওয়ার্ডে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলার খবর পেয়ে ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের রেঞ্জ কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম, চুনতি বিট কর্মকর্তা ফরিদ উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল বনকর্মী ও হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

হামলায় আহতরা হলেন, আজিজনগর অভয়ারণ্য বনবিট কর্মকর্তা আজহার আলী ((৪৫), হারবাং অভয়ারণ্য বনবিট কর্মকর্তা মামুনুর রশীদ (৪৭), বনকর্মী মো. ইউসুফ (২৯), মানিক চন্দ্র দে (৩৫), নিলিমেশ বৈরাগী (৩৭), কামরুল আলম (৪৫), শওকত উল্লাহ (৪০) ও সিজিপি সদস্য মো. শফি (৬০), মো. করিমদাদ (৫২)।

আহতদের মধ্যে মানিক চন্দ্র দে, কামরুল আলম ও শওকত উল্লাহ’র অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

থানা পুলিশ ও বন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, সকাল ১০টার দিকে আজিজনগর অভয়ারণ্য ও হারবাং অভয়ারণ্য বিটের বিট কর্মকর্তা ও কর্মীরা নিয়মিত টহলে যায়। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উত্তর হারবাং পশ্চিম ভিলেজার পাড়ায় পৌঁছলে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা আনুমানিক ৩’শ অবৈধ দখলকারী দা, লাঠি ও দেশীয় তৈরি বিভিন্ন অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়।
তাদের কাছে থাকা আগ্নেয়াস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে। আত্মরক্ষার্থে বন বিভাগের দায়িত্বরত নিরাপত্তা কর্মীরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি চালায়।
এসময় ভূমিদস্যুরা বন-কর্মীদের বন্দুকগুলো কেড়ে নিয়ে ব্যাপক মারধর করে। খবর পেয়ে চুনতি ও সাফারি পার্কের বনকর্মী ও হারবাং পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে হামলাকারীরা বন্দুক ফেলে পালিয়ে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

চুনতি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য রেঞ্জ কর্মকর্তা ফরিদ উদ্দিন বলেন, বন বিভাগের জায়গায় গাছ লাগালে ভূমিদস্যুরা সব কেটে তছনছ করে ফেলে। স্থানীয় কয়েকজন ভূমিদস্যুরা। বনমন্ত্রীর নির্দেশে বনবিভাগে অবৈধ দখলকারীদের উচ্ছেদের অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে বনবিভাগ। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিদিনের মত আজ টহলে গেলে বন কর্মকর্তা ও বন-কর্মীদের উপর অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা রামদা, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বনকর্মকর্তাদের উপর হামলা চালায়। হামলায় ২ অভয়ারণ্য বনবিট কর্মকর্তাসহ ৯জন বনকর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে বলে জানান।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, বনকর্মীদের ওপর সন্ত্রাসীদের হামলা জড়িতদের বিরুদ্ধে এখনো কোন লিখিত অভিযোগ দেন নাই। অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •