মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার শহরের আলির জাহাল টিএমসি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা, কক্সবাজার জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দীন চৌধুরী’র পিতা আলহাজ্ব মোসলেহ্ উদ্দীন চৌধুরী (৮৭) আর নেই। সোমবার ৩০ নভেম্বর বিকেল ৪ টার দিকে শহরের ইউনিয়ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন  অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি–রাজেউন)। তিনি বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।

মরহুম মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী’র সন্তান আতিক উদ্দীন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী মৃত্যূকালে স্ত্রী তাহেরা বেগম চৌধুরানী, তিন পুত্র ও তিন কন্যা সন্তান সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান। বর্তমানে কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ার ছরায় (পূর্ব) বসবাসরত মরহুম মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী হচ্ছেন- কুতুবদিয়ার বড়ঘোপের ঐতিহ্যবাহী ফতেহআলী মাতবর পরিবারের সদস্য মরহুম সাঁচি মিয়া মাতবর ও জুলেখা খাতুনের পুত্র এবং কক্সবাজার সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক মরহুম সিরাজদৌল্লাহ’র ছোট ভাই। মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী কুমিল্লা সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে এইসএসসি ও বিএসসি পাশ করেন। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬১ সালে মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিষয়ে কৃতিত্বের সাথে মাস্টার্স সম্পন্ন করে ১৯৬২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একই বিষয়ের প্রভাষক হিসাবে কয়েক বছর শিক্ষকতা করেন। বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী শহরের টিএমসি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ছাড়াও হজরত ওমর ফারুক (রা:) জামে মসজিদ, ঝিলংজা জানারঘোনা জুলেখা খাতুন জামে মসজিদ, এসএম পাড়া মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরীর প্রজেক্ট সংলগ্ন জামে মসজিদ, কলেজ গেইটে তাহেরা বেগম চৌধুরানী মাদ্রাসা সহ বেশ কিছু শিক্ষা, ধর্মীয় ও কল্যানকর প্রতিষ্ঠানের উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা।

অসাধারণ প্রতিভাসম্পন্ন ও বহুগুনে গুণান্বিত মরহুম মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরীর নামাজে জানাজা মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর জুহুরের নামাজের পর হাসেমিয়া কামিল মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত হবে বলে মরহুমের সন্তান, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দীন চৌধুরী জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •