নীতিশ বড়ুয়া, রামু:

“মুক্তিযুদ্ধের বিজয় বাঙ্গালীর হাজার বছরের পরাধীনতার প্রতিশোধ” এ প্রতিপাদ্যে কক্সবাজারের রামু স্টেডিয়ামে বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় এ বছরও মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা উদযাপন হতে যাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা উদযাপন পরিষদ ২০২০ গঠন উপলক্ষে ২৯ নভেম্বর, রবিবার বিকাল ৩ টায় এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রামু ওসমান ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে পুনরায় সাইমুম সরওয়ার কমল এমপিকে চেয়ারম্যান ও রামু উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ উল আলম চেয়ারম্যানকে মহাসচিব করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরি পরিষদ গঠন করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম মহাসচিব তপন মল্লিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হক চেয়ারম্যান, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বাঙ্গালী চেয়ারম্যান, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক রেজা, মুক্তিযোদ্ধা রণধীর বড়ুয়া, মাষ্টার ফরিদ আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা রমেশ বড়–য়াসহ ২৫ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা পরিষদ গঠন করা হয়।

এছাড়া প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক গোলাম কবির মেম্বার, মাষ্টার মো. আলম, বাবুল শর্মা, মুসরাত জাহান মুন্নি, নবু আলম, আলী হোসেন কোং, মীর মোঃ আবুল কালাম আজাদ, ওসমান সরওয়ার মামুন, পলক বড়ুয়া আপ্পুসহ ২১ সদস্য বিশিষ্ট কো-চেয়ারম্যান, রামু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়ুয়া, রামু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. সালাহ উদ্দিন, সৈয়দ মোহাম্মদ আব্দুশ শুক্কুর, রজত বড়ুয়া রিকু, আনচারুল হক ভুট্টো, নুরুল আলম জিকুকে যুগ্ন-মহাসচিব করা হয়।

কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য নুরুল হক কোং, জামাল উদ্দিন কোং, রফিকুল আলম কোং কে অর্থ পরিষদ, বাংলাদেশ বেতারের সংগীত প্রযোজক, শিল্পী বশিরুল ইসলাম, শিল্পী হিমাদ্রী বড়ুয়া পান্থ, শিল্পী পুলক বড়ুয়া, শিল্প মানসী বড়ুয়া, শিল্পী সোনিয়া বড়ুয়া, শিল্পী মীনা মল্লিক, শিল্পী জয়শ্রী বড়ুয়ার নেতৃত্বে সাংস্কৃতিক পরিষদ, মাষ্টার মোহাম্মদ আলম স্যারের নেতৃত্বে নাট্য পরিষদ, আজিজুল হক আজিজের নেতৃত্বে প্রচার উপ-পরিষদ, সাংবাদিক খালেদ শহীদ, সুনীল বড়ুয়া, খালেদ হোসেন টাপু, সোয়েব সাঈদসহ রামুর সকল সাংবাদিককে সংবাদ উপ-পরিষদ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নেতা এডভোকেট কায়ছার মাহমুদ, সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে প্রকাশনা উপ-পরিষদসহ আরো ১৬টি উপ-পরিষদ গঠন এবং চাকমারকুলের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সিকদার, ফতেখাঁরকুলের চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, জোয়ারিয়ানালার সাবেক চেয়ারম্যান এম এম নুরুচ ছাপা, কচ্ছপিয়ার সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন কোং, গর্জনিয়ার চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, ঈদগড়ের চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভুট্টো, খুনিয়াপালং এর চেয়ারম্যান সাংবাদিক আব্দুল মাবুদ, ফতেখাঁরকুলের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো, রাজারকুলের চেয়ারম্যান মুফিজুর রহমান, দক্ষিণ মিঠাছড়ির চেয়ারম্যান মো.ইউনুচ ভট্টো, রশিদনগরের চেয়ারম্যান এমডি শাহ আলম, কচ্ছপিয়ার চেয়ারম্যান আবু মো. ইসমাইল নোমান, কাউয়ারখোপের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদকে সদস্য করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট উদযাপন পরিষদ গঠন করা হয়। সভায় মুক্তিযুদ্ধের মহান চেতনাকে সমুন্নত রেখে, সামাজিক দুরত্ব বজায় ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে রামু ষ্টেডিয়ামে আগামী ১৬ ডিসেম্বার থেকে ৭ দিন ব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা উদযাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •