স্পোর্টস ডেস্ক:
কিংবদন্তির মহাপ্রয়াণ। হঠাৎ এভাবে চলে গেলেন দিয়েগো ম্যারাডোনা, ফুটবল বিশ্বকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে! আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির আকস্মিক মৃত্যু মেনে নিতে পারছে না ফুটবল দুনিয়া।

কদিন আগেই সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। চিকিৎসকদের পরামর্শে ভর্তি হয়েছিলেন মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে। ম্যারাডোনার তো নতুন জীবন শুরু হওয়ার কথা ছিল। সেই তিনি সবাইকে কাঁদিয়ে চলে যেতে পারলেন!

ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলিতে ১৯৮৪ থেকে ১৯৯১ পর্যন্ত প্রায় সাত বছর খেলেছেন ম্যারাডোনা। কিংবদন্তির এমন বিদায়ে শোকাহত তার ক্লাব। এক বিবৃতিতে তারা বলেছে, ‘শহর ও ক্লাবের জন্য অনেক বড় এক ধাক্কা। আমরা শোকাহত। মনে হচ্ছে একজন মুষ্টিযোদ্ধা ছিটকে গেলেন। আমরা স্তম্ভিত। সবসময় আমাদের হৃদয়ে থাকবে, দিয়েগো।’

সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তর্কে যার সঙ্গে সবসময় প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল, সেই ব্রাজিল কিংবদন্তি পেলেও বন্ধুকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ। রয়টার্সের সঙ্গে আলাপে পেলে বলেন, ‘এমন একজন বন্ধুকে হারানোর মতো দুঃখের সংবাদ পেলাম। ঈশ্বর তার পরিবারকে শোক সইবার শক্তি দিন। অবশ্যই, একদিন স্বর্গে আমরা একসঙ্গে ফুটবল খেলব।’

১৯৮৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ‘ঈশ্বরের হাত’খ্যাত গোল করেছিলেন ম্যারাডোনা। সে ম্যাচে প্রতিপক্ষ দলে থাকা ইংল্যান্ডের সাবেক স্ট্রাইকার গ্যারি লিনেকারও আর্জেন্টাইন জাদুকরকে সর্বকালের সেরা মানেন।

এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘আর্জেন্টিনা থেকে খবর এল ম্যারাডোনা আর নেই। আমার প্রজন্মের সেরা ফুটবলার। তর্কহীনভাবে সর্বকালের সেরা। অবশেষে ‘ঈশ্বরের হাতে’ নিজেকে সপে দিয়ে শান্তি হয়তো পাবে।’

ম্যারাডোনার দেশ আর্জেন্টিনার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন টুইটারে শোক জানিয়েছে এভাবে, ‘আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট ক্লদিও তাপিয়ার মাধ্যমে আমাদের কিংবদন্তি দিয়েগো আরমান্দো ম্যারাডোনার মৃত্যুতে গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। আপনি সবসময় আমাদের হৃদয়ে থাকবেন।’

পর্তুগাল এবং জুভেন্টাসের ফুটবল সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘আজ আমি একজন বন্ধুকে বিদায় বলছি আর বিশ্ব বিদায় বলছে চিরায়ত এক প্রতিভাকে। আমাদের সময়ের অন্যতম সেরা একজন। অতুলনীয় এক জাদুকর। তিনি একটু তাড়াতাড়িই চলে গেলেন। কিন্তু রেখে গেলেন অগণিত ভক্ত। এ শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। ওপারে ভালো থাকবেন। আপনাকে কখনও ভুলব না।’

ম্যারাডোনার উত্তরসূরী আর্জেন্টাইন খুদেরাজ লিওনেল মেসি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, ‘সকল আর্জেন্টাইন ও সারাবিশ্বের সবার জন্য কষ্টের একটি দিন। তিনি আমাদের ছেড়ে গেছেন কিন্তু চলে যাননি। দিয়েগো অমর। আমি তার সঙ্গে কাটানো সকল সুন্দর মুহূর্ত নিজের কাছে রেখে দিয়েছি। তার পরিবার ও কাছের বন্ধুদের জন্য আমার সহমর্মিতা। শান্তিতে থাকুন ম্যারাডোনা।’

স্বদেশি ক্লাব বোকা জুনিয়র্সে দুই দফায় ১৯৮১-৮২ এবং ১৯৯৫-৯৭ মৌসুমে খেলেছেন ম্যারাডোনা। তারা শোক জানিয়েছে এভাবে, ‘অশেষ ধন্যবাদ। অমর দিয়েগো।’

আর্জেন্টাইন ক্লাব নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজে ম্যারাডোনা খেলেছেন ১৯৯৩-৯৪ মৌসুমে। তারাও ঘরের ছেলেকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ। ক্লাবটি লিখেছে, ‘কিছু বলার ভাষা নেই। ওপারে ভালো থাকবেন দিয়েগো।’

লা লিগার ক্লাব বার্সেলোনাতেও খেলেছেন ১৯৮২ থেকে ১৯৮৪ পর্যন্ত। তারা লিখেছে, ‘এফসি বার্সেলোনা আমাদের ক্লাবের খেলোয়াড় এবং বিশ্ব ফুটবলের আইকন দিয়েগো আরমান্দো ম্যারাডোনার মৃত্যুতে গভীর সমবেদনা জানাচ্ছে। ওপারে ভালো থাকবেন দিয়েগো। সবকিছুর জন্য ধন্যবাদ।’

লা লিগার আরেক সফল ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ শোক জানিয়ে লিখেছে, ‘রিয়াল মাদ্রিদ এবং এর প্রেসিডেন্ট বিশ্ব ফুটবলের কিংবদন্তি দিয়েগো আরমান্দো ম্যারাডোনার মৃত্যুতে গভীর শোক জানাচ্ছে। তার পরিবার, বন্ধু, ক্লাব এবং সকল ফুটবল ভক্ত বিশেষ করে আর্জেন্টিনার, তাদের জন্য সমবেদনা। তিনি অসংখ্য ভক্তকুল রেখে গেছেন। বিশ্বজুড়ে লাখো ভক্তের কাছে কিংবদন্তি তিনি।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •