এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া :

চকরিয়া উপজেলার কৈয়ারবিলে মাদকাসক্ত স্বামীর ধারালো ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে স্ত্রী। এ ঘটনায় আহত স্ত্রী থানায় এজাহার দায়ের করেছেন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে ইউনিয়নের ইসলাম নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে বুধবার রাতে ফের বসতঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে স্বামী।

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, কৈয়ারবিল ইসলাম নগর এলাকার লিয়াকত আলী চৌকিদার ছেলে নাছির উদ্দিনের সঙ্গে কাকারা বার আউলিয়া নগর এলাকার কামাল উদ্দিনের মেয়ে রোজিনা আক্তারের সাথে প্রায় ১৪ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক মাস পরে রোজিনা জানতে পারে তার স্বামী একজন মাদকাসক্ত ও জুয়াড়ি। এ নিয়ে প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হতো।

নেশায় আসক্ত স্বামী নাছির উদ্দিন বিভিন্ন সময় তার স্ত্রীকে মারধর করে নির্যাতন করত। নেশাখোর স্বামীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে বেশ কয়েকবার স্বামীর বাড়ি ত্যাগ করে রোজিনা তার ছেলে-মেয়ে নিয়ে বাপের বাড়িতে আশ্রয় নেন। পরে পারিবারিক ভাবে ঘটনা মিমাংসা করে নাছির উদ্দিনের বাবার মধ্যস্থতায় স্ত্রী রোজিনা আক্তারকে স্বামীর বাড়িতে নিয়ে আসেন।

বেশকিছু দিন সংসার জীবন অতিবাহিত হওয়ার পর নাছির উদ্দিন ফের মাদকাসক্তে জড়িয়ে পড়েন। বর্তমানে তাদের সংসারে দুই ছেলে ও দুই কন্যা সন্তান রয়েছে। স্ত্রী রোজিনা আক্তারকে পরিবারের ভরণ পোষণ না দিয়ে তার অজান্তেই স্বামী নাছির উদ্দিন দ্বিতীয় বিবাহ করেন। বিবাহের পর থেকে রোজিনাকে প্রায়ই সময় মারধর করে নির্যাতন করে আসছিল মাদকাসক্ত স্বামী নাছির।

সর্বশেষ গত ১২নভেম্বর পারিবারিক বিরোধে মাদকাসক্ত হয়ে নাছির উদ্দিন তার স্ত্রী রোজিনাকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় আহত রোজিনা বাদী হয়ে স্বামী নাছিরসহ পাঁচজনকে আসামি করে থানায় এজাহার দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে চকরিয়া আদালতে জি.আর (৪৬৭/২০২০) মামলা দায়ের করা হয়। এদিকে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী রোজিনা থানায় অভিযোগ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে বুধবার ফের বসতঘরের রান্নাঘরে আগুন ধরিয়ে দেন মাদকাসক্ত স্বামী নাছির উদ্দিন।

আহত রোজিনা বলেন, ঘটনার দিন সকালে আমার স্বামী অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমাকে চুরি মেরে ও ব্যাপক মারধর করে পালিয়ে যায়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, নেশার টাকার জন্য তার স্বামী তাকে প্রায়ই মারধর ও নির্যাতন করত। স্বামীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছি। মারধর ও নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে মামলা করায় আমাকে ও আমার ভাইদের প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও আমার ওপরে ক্ষিপ্ত হয়ে বুধবার ফের বসতঘরের রান্নাঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে সে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনেন। এনিয়ে প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, স্ত্রীকে মারধর ও নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে থানায় অভিযোগ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার বিষয়টি কেউ আমাকে অবহিত করেনি। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •