ওসমান আবির :

টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তত্ত্ববধানে থাকা বঙ্গবন্ধু খেলার মাঠের বেদখল হয়ে যাওয়া জমি উদ্ধার করেছে টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবুল মনসুর। আজ মঙ্গলবার সকালে তার নেতৃত্বে একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাঠের জায়গা উদ্ধার করেন। উদ্ধার হওয়া এসব জমি দীর্ঘদিন ধরে মাঠ সংলগ্ন বসবাসকারী কয়েকজন ব্যক্তির বেদখলে ছিল।

খেলার মাঠের দখল উচ্ছেদের সময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও শাহপরীর দ্বীপ সাংগঠনিক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোনা আলী, টেকনাফ উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও বিদ্যালয় এসএমসি সভাপতি মাস্টার জাহেদ হোসেন, শাহপরীর দ্বীপ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনির উল্লাহ, শাহপরীর দ্বীপ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কলিম উল্লাহ, সাবরাং ইউপির ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য রেজাউল করিম রেজু, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ছেনোয়ারা বেগম, বিদ্যালয় এসএমসি কমিটির সহ সভাপতি জাহেদ হোসেন, শাহপরীর দ্বীপ আওয়ামী লীগে সহ সভাপতি মনির উল্লাহ, টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসেদ, শাহপরীর দ্বীপ ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আমিন সাগর, বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এনাম উল্লাহ সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও শাহপরীর দ্বীপ সাংগঠনিক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোনা আলী বলেন, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহপরীর দ্বীপ বঙ্গবন্ধু খেলার মাঠটির বেদখল হওয়া জমি উদ্ধার করেছেন। তবে যাদের দখলে মাঠের জমি ছিল তারাও একপর্যায়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি)র অনুরোধে মাঠের জমি ছেড়ে দিতে সম্মত হয়েছে।

বিদ্যালয়ের সভাপতি মাস্টার জাহেদ হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু খেলার মাঠটি খেলাধুলায় সবাই ব্যবহার করে। দখলের কারণে মাঠটি ছোট হয়ে আসছিল। কিন্তু আজকে মাঠটি মেপে দখলদাদের জমি ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)। এখন আমরা একটি বড় মাঠ পাবো বলে আশা করছি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কলিম উল্লাহ বলেন, বঙ্গবন্ধু খেলার মাঠটি জেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একমাত্র খেলার মাঠ। মাঠটি আমার বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। দীর্ঘদিন মাঠের জমি বিভিন্ন ব্যক্তিবিশেষের দখলে ছিল।দখলে থাকা জমিগুলো মেপে উদ্ধারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবুল মনসুর সহ যারা সহযোগীতা করেছেন সবার কাছে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •