এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
চকরিয়ায় বিভিন্ন ইউনিয়নে দখলবাজ চক্ররা সরকারি ঘোপাট, খাল ও রাস্তার জায়গা দখল করে অবৈধ ভাবে স্থাপনা নির্মাণ করে আসছিল। বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে নির্মাণাধীন ওই অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিয়ে দখলদার উচ্ছেদ করে ৬ একর ৮০শতক সরকারি খাস খতিয়ানভুক্ত জায়গা দখলমুক্ত করা হয়।

অভিযানের সময় সরকারি কাজে বাঁধা দেয়ায় রাশেদ (২৪) নামের এক ব্যক্তিকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া রাশেদ উপজেলার ইলিশিয়া এলাকার আবদু শুক্কুরের ছেলে।

সোমবার (২৩ নভেম্বর) দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত উপজেলার ডেমুশিয়া, বিএমচর, পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় একটানা সাত ঘন্টা অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হোসেন।

চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হোসেন বলেন, উপজেলার ডেমুশিয়া, বিএমচর, পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় সংঘবদ্ধ দখলবাজ চক্র সরকারি খাস খতিয়ানভুক্ত জায়গা দখল করে বসতিসহ স্থাপনা নির্মাণ করে আসছিল। বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজের নির্দেশনায় সোমবার
বেলা ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এসব ইউনিয়নে
ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়। এসময় সরকারি খতিয়ানভুক্ত জায়গায় অবৈধভাবে নির্মিত বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করে ৬ একর ৮০ শতক জমি অবৈধ দখলদার থেকে দখলমুক্ত করে সরকারের দখলে আনা হয়৷

তিনি আরো জানান, ভ্রাম্যমান আদালতের অপর আরেকটি একটি অভিযানে সরকারি কাজে বাঁধা দেওয়ায়, মাস্ক না পরায় ও স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করার দায়ে ৬টি মামলায় ৩০হাজার ৪০০টাকা জরিমানা আদায় করা হয় এবং অপর ১টি মামলায় একজনকে ১০ দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

অভিযানের সময় উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, থানা পুলিশ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •