অনলাইন ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার মন্ত্রিসভায় ঝানু কূটনীতিক অ্যান্টনি ব্লিনকেনকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব দিচ্ছেন। সোমবার এই ঘোষণা আসতে পারে বলে জানাচ্ছে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো। – জাগোনিউজ

বাইডেনের টিমের ঘনিষ্ঠ কিছু সূত্রের বরাত দিয়ে নিউইয়র্ক টাইমস ও ব্লুমবার্গসহ যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে যে, শেষ পর্যন্ত অভিজ্ঞ ব্লিনকেনকেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে বেঁছে নিয়েছেন বাইডেন।

বারাক ওবামা প্রশাসনে সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সহকারী জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার দায়িত্ব সামলেছেন ৫৮ বছর বয়সী ব্লিনকেন। প্রসঙ্গত, বারাক ওবামা প্রশাসনে দুই মেয়াদে ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন জো বাইডেন।

ব্লিনকেন বাইডেনের খুব ঘনিষ্ঠ ও আস্থাভাজন ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। এ ছাড়া তাকে ‘বৈশ্বিক জোটের রক্ষক’ হিসেবেও ডাকেন কেউ কেউ। কাছের অনেকে তাকে ‘কূটনীতিকদের কূটনীতিক’ হিসেবেও বর্ণনা করেছেন।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলম্বিয়া আইন স্কুলের স্নাতক এবং দীর্ঘদিন ডেমোক্র্যাটদের পররাষ্ট্রনীতির সঙ্গে যুক্ত ব্লিনকেনের দৃষ্টিভঙ্গি হচ্ছে, ওয়াশিংটনকে বিশ্বে সক্রিয় নেতৃত্বের ভূমিকা নিতে হবে নয়তো চীনের মতো প্রতিপক্ষ দেশগুলোর বিপরীত স্বার্থের দ্বারা চালিত এক বিশ্বের সাক্ষী হয়ে থাকতে হবে যুক্তরাষ্ট্রকে।

ফলে নিশ্চিতভাবে মনোনয়নের মাধ্যমে যদি তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলে বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের সক্রিয় নেতৃত্বের ভূমিকা তৈরির কাজ করে যাবেন। চীনের পরাশক্তি হওয়ার মতো বিষয়টি মোকাবিলার পক্ষে এই কূটনীতিক।

রয়টার্স জানাচ্ছে, মঙ্গলবার ব্লিনকেনকে মনোনীত করার ঘোষণা আসতে পারে। কিছুদিন আইনচর্চার পর ১৯৮০ এর দশকের শেষভাগে ডেমোক্র্যাট রাজনীতিতে যোগ দেয়া ব্লিনকেনই বাইডেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হচ্ছেন।

বাইডেনে তার আরেক ঘনিষ্ঠ জেক সুলিভানকে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এবং পররাষ্ট্র দফতরের অভিজ্ঞ ৩৫ বছর বয়সী লিন্ডা থমাস গ্রিনফ্লিডকে জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব দিচ্ছেন বলেও জানা যাচ্ছে।

বাইডেনের টিমের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এ নিয়ে এখনও কিছু জানানো হয়নি। তবে জো বাইডেন-কমলা হ্যারিস প্রশাসনের হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ হিসেবে মনোনীত রন ক্লেইন মঙ্গলবার জানিয়েছেন, আগামী ২৪ নভেম্বর জো বাইডেন তার মন্ত্রিসভার প্রথম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির নাম ঘোষণা করবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •