কয়েকটি অনলাইন ও প্রিন্ট মিডিয়াতে আমাকে দালাল উল্লেখ করে একটি বিভ্রান্তিমূলক সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। এমন সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং বস্তু নিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের আহ্বান জানাচ্ছি।

সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে, উখিয়া জালিয়া পালং ইউনিয়ন নিদানিয়ায় চিহ্নিত ভূমিদস্য জামায়াত নেতা ছৈয়দ আলমের নেতৃত্বে একটি জালিয়াতে সিন্ডিকেট একই এলাকার ৭৩ বছরের অসহাজয় বয়োবৃদ্ধের জমি আত্নাসাতের পায়তারা করছে অসাধু সিন্ডিকেটটি ইতোমধ্যে জাল দলিল তৈরি করে ছৈয়দ আহমদের জমি নিজের বলে দবি করছে। এই জালিয়াতি ও প্রতারণার সিন্ডিকেটে রয়েছে জালিয়া পালংয়ের নিদানিয়ার রশিদ আহমদের পুত্র দালাল শাহলাম আলম। এ তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমাকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার নিমিত্তে সাংবাদিকের কাছে এমন মিথ্যা তথ্য প্রদান করা হয়েছে।
সঠিক তথ্য হচ্ছে, উক্ত জমিনটি বিক্রিয় করার জন্য ৪২ লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা মূল্য নির্ধারণ করিয়া অদ্য তারিখ নিম্ন স্বাক্ষরিত স্বাক্ষীগণের স্বাক্ষতে জমির আংশিক মূল্য বাবদ পাঁচ লক্ষ টাকা বুঝিয়ে নে। বাকী টাকাগুলো পরিশোধ করলে জমিনটি রেজিস্ট্রি দিবে বলে একটি চুক্তি পত্র হয়েছে। এলাকার কিছু কোচক্রমহলের কথা মত লোভ সামলাতে না পেরে অন্য লোকের কাছে জমিনটি বিক্রি করে দেয়। টাকাগুলো ফেরত না দেওয়ার জন্য বিভিন্ন তালবাহানা, মিথ্যা অপবাদ দিয়ে গত ১৭ নভেম্বরের সংবাদ সম্মেলনটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এ বিষয়ে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ রইল।

নিবেদক
মোঃ শাহ আলম
নিদানিয়া, জালিয়া পালং ইউনিয়ন, উখিয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •