ইমাম খাইর, সিবিএন:
পুরনো প্রবাদ ‘বাইরে ফিটফাট ভেতরে সদরঘাট’ আবারো সত্য প্রমাণিত।
পর্যটন শহরের খাবার প্রতিষ্ঠানগুলোর ভেতরের পরিবেশ নিয়ে অনেক দিনের প্রশ্ন-অভিযোগ ছিল ভোক্তাদের। অভিযোগ রয়েছে অতিরিক্ত দাম আদায়ের।
অবশেষে জেলা প্রশাসনের অভিযানে তার সত্যতা মিলেছে।
বুধবার (১৮ নভেম্বর) ‘অভিজাত’ ট্যাগধারী কয়েকটি খাবার প্রতিষ্ঠানের রান্নাঘর, খাবার পরিবেশন, সংরক্ষণ ইত্যাদি দেখে রীতিমতো হতবাক অভিযানকারীরা।
এসব প্রতিষ্ঠানে রান্না করা খাদ্য ও কাচা মাছ-মাংস একই ফ্রিজে বিক্রির উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ, নোংরা পরিবেশে খাবার পরিবেশনসহ নানা অভিযোগ-অসঙ্গতি ধরা পড়ে। সেসব অভিযোগে অবশ্য তাদের সতর্ককতামূলক জরিমানাও করা হয়েছে।
অভিযানকালে তরঙ্গ, রূপসী বাংলাসহ ৪টি খাবার প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন অংকে মোট ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসনের টিম।
শহরের সুগন্ধা পয়েন্টের তরঙ্গ রেস্তুরাঁর রান্না করা খাদ্য ও কাচা মাছ-মাংস একই ফ্রিজে সংরক্ষণ, এমআরপির চেয়ে পানির বোতলে অতিরিক্ত দাম আদায় ও অপরিচ্ছন্ন রান্নাঘরের কারণে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হয়েছে।
হোটেল মোটেল জোনের রূপসী বাংলা রেস্টুরেন্টে ভ্যাটে অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে অভিযানকারীরা। সে কারণে তাদেরকে ২০ হাজার টাকা অর্থ দন্ড দেয় প্রশাসন।
শহরের লালদীঘিপাড়স্থ বিরাম হোটেলে খোলা খাবার পরিবেশন, অপরিস্কার রান্নাঘর, ক্যাশ মেমোতে সীল-স্বাক্ষর না থাকার অভিযোগে ৩০ হাজার টাকা এবং নোংরা পরিবেশ, রান্না করা ও কাচা খাবার একই ফ্রিজে সংরক্ষণের অপরাধে বাজারঘাটা এলাকার আড্ডাবাড়ি রেস্তুরাঁকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লাভলী ইয়াসমিনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে এসব জরিমানা করা হয়।
আনসার ব্যাটেলিয়নের কর্মকর্তা ও সদস্যবৃন্দ অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করেন।
অভিযানে প্রসিকিউশনে থাকা নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শকের দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর তরুণ বড়ুয়া জানান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় জরিমানা করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •