ছৈয়দ আহমদ তানশীর উদ্দীনঃ
বাংলাদেশের একমাত্র রোহিঙ্গাজনগোষ্ঠী বেষ্টিত জেলা কক্সবাজার। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী ছাড় এ জেলার জনসংখ্যা ২৬ লাখ। এ জেলার ৮০শতাংশ মানুষ গ্রামে বাস করেন।কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল (কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অস্থায়ী ক্যাম্পাস) এ অঞ্চলের একমাত্র সর্বোচ্চসেবাকেন্দ্র । এ জেলার ৮টি উপজেলা সহ পার্শ্ববর্তী নাইক্ষংছড়ি উপজেলার বিশাল জনগোষ্ঠী এ হাসপাতালের সেবার উপর নির্ভর করে।অধিকাংশ মানুষ গ্রামীন জনপদে বাসকরে বিধায় হাসপাতালে এসে মায়েরা সেবা নিতে পারেন না।তবে উপজলো স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিক গুলো সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এখানকার আর্থসমাজিক প্রেক্ষাপটে নারীরা হাসপাতালে এসে সেবা নিতে সংকোচবোধ করেন।তাছাড়া কিছু কুসংস্কার বা বিশ্বাসের কারণে তারা হাসপাতালে এসে সেবাটা নিতে চায়না।
ফলশ্রুতিতে প্রসুতি মায়েরা দীর্ঘমেয়াদি ঝুঁকিতে পড়েন এবং মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্য বিঘ্নিত হয়।
সম্প্রতি এ জেলায় শিশু জন্মের হার বেড়েছে তাছাড়া রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর কারণে জনসংখ্যা বাড়ার সম্ভাবনা অমূলক নয়।
আমরা ঘরে ঘরে সেবাটা প্রদান করলে মায়েরা উৎসাহ হারাবেন না এবং এসব প্রসুতি মায়ের মৃত্যু ঝুঁকি কমবে ও শিশু-মাতৃস্বাস্থ্য নিশ্চিত হবে। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া। দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি সে লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন।
ঘরে ঘরে প্রসুতি মায়ের সেবা পৌঁছে দিতে চাইলে মিডওয়াইফ তৈরীর বিকল্প নাই। এজন্য প্রয়োজন মিডওয়াইফারী কোর্স চালু করা। জেলার একমাত্র সরকারি নার্সিং ইনস্টিটিউটে বর্তমানে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং কোর্স চালু আছে। তবে ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারী কোর্স চালু করা প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। আশার কথা হল, গেল ১২নভেম্বর কক্সবাজার জেলায় সফরকালীন নার্সিং ও মিডওয়াইফারী অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব জনাব সিদ্দিকা আক্তার খুব দ্রুত এ কোর্স চালুর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস প্রদান করেন।
আমরা কক্সবাজার বাসী এতে আশান্বিত হয়।শুনেছি কক্সবাজার জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত মাননীয় সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ (স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব) জোর তাগিদ দিয়েছেন এ কোর্স চালুর ব্যাপারে।
পরিশেষে এইটুকু বলি আপনার জন্মের পর যাকে দেখেন তিনি হচ্ছেন সিএসবিএ, মিডওয়াইফ বা গাইনোকোলজিস্ট। মিডওয়াইফরা আমাদেরকে পৃথিবীতে আসতে সহায়তা করেন।মাকে তার সন্তাটাকে জন্মদান করাতে সহায়তা করেন। নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিতে মিডওয়াইফের বিকল্প নাই।

লেখকঃ
নার্স ও পুষ্টিবিদ, কক্সবাজার
বিএসসি ইন নার্সিং(চবি)
এমপিএইচ ইন নিউট্রিশন (ইবি)
ইমেইলঃ [email protected]

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •