শাহেদ মিজান, সিবিএন:
উখিয়া-টেকনাফ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আর নেই। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে ৭৬ শুক্রবার ১৩ নভেম্বর ভোররাত চারটার দিকে জেলা সদর হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। এর আগে টেকনাফের হ্নীলাস্থ বাড়িতে গুরুতর অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। তিনি বার্ধক্য ও ডায়বেটিস রোগে আক্রান্ত ছিলেন। এর মধ্য দিয়ে বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ব্যক্তির অবসান হলো।

মোহাম্মদ আলী একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত এই মানুষটি আওয়ামী রাজনীতে সারা জীবন কাটিয়ে দিয়ে গেছেন। কর্মজীবনে কক্সবাজার সরকারি কলেজের শিক্ষকতা করেছেন কিছুদিন। এরপর একচেটিয়াভাবে ছিলেন রাজনীতির মাঠে। ১৯৯৬-২০০১ সালে কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরের বারও প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে পরাজিত হোন। কিন্তু রাজনীতির মাঠ থেকে সরে যাননি। পরে জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হোন।

অভিযোগ রয়েছে, সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি আওয়ামী লীগে যোগ দেয়ার পর থেকে কিছুটা কোণঠাসা হয়ে পড়েছিলেন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ। তখন প্রতিযোগিতা করেও বদির কারিশমার কাছে সংসদ নির্বাচনের দলীয় পদ পেতে বার বার ছিটকে পড়েছিলেন। তবে মাঠ ছেড়ে যান যাননি। দায়িত্ব নিয়েছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির। আমরণ তিনি সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। গত মেয়াদে দলীয় প্রার্থী হিসেবে উপজেলা চেয়ারম্যানও নির্বাচিতন হোন। সর্বশেষ উপজেলা নির্বাচনে তিনি দলীয় প্রার্থী হয়েও বিদ্রোহী প্রার্থীর কাছে কাছে হেরে যান।

শিক্ষকতা করার অনেকে তাকে এখনো স্যার সম্বোধন করেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত দলের জন্য নিবেদিত কর্মীবান্ধব একজন নেতা ছিলেন অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী। এমন বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী প্রবীণ রাজনীতিদ অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীকে হারিয়ে টেকনাফের মানুষে শোকে ভাসছেন।

অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর নামাজে জানাজা আজ বিকেল সাড়ে চারটায় হ্নীলা দরগাহ সিএন্ডবি মাঠে অনুষ্ঠিত হবে নিশ্চিত করেছেন তাঁর মেজো ছেলে হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •