সিবিএন ডেস্ক:
দীর্ঘদিন যাবত পাকিস্তানে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড রফতানি করে আসছে বাংলাদেশ। এবার এই পণ্যের ওপর এন্টি ডাম্পিং শুল্কারোপ করেছে দেশটি। তবে বিষয়টিকে অন্যায্য দাবি করে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও)-এর দারস্থ হচ্ছে বাংলাদেশ। দেশের ব্যবসায়ীদের অভিযোগের ভিত্তিতেই এই বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় যাওয়ার কথা ভাবছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, পাকিস্তানের অভিযোগ বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা উৎপাদন খরচের চেয়ে কম মূল্যে পণ্য রপ্তানি করছে। ফলে তাদের অভ্যন্তরীণ শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। পাকিস্তানের হাইড্রোজেন পার অক্সাইড উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ২০১৬ সালে তাদের সরকারের কাছে আবেদন জানালে দেশটির ন্যাশনাল ট্যারিফ কমিশন এই শুল্কারোপ করে।

সে সময় বাংলাদেশ এর প্রতিবাদ করে এ ধরনের এন্টি ডাম্পিং শুল্কারোপ বন্ধে পাকিস্তান সরকারকে চিঠি দেয়। কিন্তু পাকিস্তান সরকার চিঠি চালাচালির মধ্যেই গত ২৬ আগস্ট একটি নোটিস জারি করে। এতে বাংলাদেশ থেকে আমদানিকৃত হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের ওপর এন্টি ডাম্পিং শুল্কারোপ করে। তাই এবার বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা’র দারস্থ হচ্ছে বাংলাদেশ।
এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক হাফিজুর রহমান বলেন, ‘রফতানিকারকরা এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে একটি আবেদন করার কথা আছে। যেন সরকার উদ্যোগ নিয়ে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় যায়। তাদের আবেদনটি আসলে আমরা বিবেচনা করব। এটা মোটামুটি বাংলাদেশের পক্ষে আছে।’

পাকিস্তান চাইলেই এভাবে শুল্ক আরোপ করতে পারে কিনা এম প্রশ্নের জবাবে হাফিজুর রহমান বলেন, ‘পারে, তবে এখানে যেভাবে করা হয়েছে তা ভুলভাবে করেছে বলেই মনে করি। তাই বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থাতে গেলে আমরা জিতব।’

সূত্র: সময় টিভি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •