সিবিএন ডেস্ক:
দারিদ্র্য নির্মূল ও পৃথিবী রক্ষায় বহুমুখী প্রচেষ্টা চালাতে বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্পেন সরকার আয়োজিত ‘বহুপাক্ষিকতা জোরদারে পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে আগে ধারণ করা ভিডিও বক্তব্যে তিনি এই আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা স্মরণ করিয়ে দেয়, প্রত্যেকে নিরাপদ না হওয়া পর্যন্ত কেউই নিরাপদ নয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘আজকের গ্লোবালাইজড বিশ্বে গঠনমূলক বহুমুখিতার কোনো বিকল্প নেই। মানবজাতির অভিন্ন অগ্রগতি ও আইন-ভিত্তিক আন্তর্জাতিক নির্দেশনার এটিই একমাত্র পথ।’

বিশ্বে সাম্প্রতিক সংরক্ষণবাদী প্রবণতা ও কয়েকটি দেশে বিদেশিদের ব্যাপারে আতঙ্কের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেনে প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এতে নিরীহ মানুষের জন্য আরও ভোগান্তি এনে দিতে পারে। শান্তিপূর্ণ বহুপাক্ষিক পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। এ কারণে আমাদের সবাইকে আন্তর্জাতিক শান্তি, সুরক্ষা ও বিশ্বব্যাপী উন্নয়নের জন্য ক্ষতিকর এই জাতীয় ক্রিয়াকলাপ থেকে বিরত থাকা উচিত।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশ বহুপক্ষীয় পতাকা বাহক। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীতে সর্বোচ্চ উপস্থিতি ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমরা জোরালোভাবে কাজ করছি।’ তিনি বলেন, ‘আমরা এসডিজি বাস্তবায়নে ‘‘গোটা সমাজ’’-এই নীতি অবলম্বন করেছি। প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নে সমানভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

দ্বিতীয় বারের মতো ৪৮ সদস্যের ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের নেতৃত্বের জন্য নির্বাচিত হওয়ায় বাংলাদেশ সম্মানিত বোধ করছে বলেও উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আমরা এলডিসি অবস্থান থেকে উন্নয়ন ঘটিয়েছি। এ ক্ষেত্রে জাতিসংঘ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। এতে বহুপাক্ষিকতার প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতি ও আস্থা প্রতিফলিত হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব‌্য রাখেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেড্রো সানচেজ, সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন লোফভেন প্রমুখ। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট, কানাডার প্রধানমন্ত্রী, নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী, জর্ডানের উপ-প্রধানমন্ত্রী, সেনেগালের পররাষ্ট্র মন্ত্রী, তিউনিসিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও কেরিয়ার পররাষ্ট্র বিষয়ক ভাইস মিনিস্টারের আগে ধারণ করা ভিডিও ভাষণ অনুষ্ঠানে সম্প্রচার করা হয়।

এছাড়া, জাতিসংঘের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনের একটি ভিডিও দেখানো হয়। সূত্র: বাসস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •