নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
সম্ভাব্য নির্বাচনী এলাকার কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে জাতীয় পার্টির জেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ক্ষমতা সীমাবদ্ধ করে দিয়েছে প্রেসিডিয়াম সভা। কমিটি গঠন, পুনর্গঠন ও বাতিল সংক্রান্ত সকল সিদ্ধান্ত দলের সম্ভাব্য এমপি প্রার্থীর। তবে, গঠনকৃত কমিটিসমূহ অনুমোদনের ক্ষমতা জেলা শাখার হাতে রাখা হয়েছে।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি কর্তৃক আদিষ্ট ও পার্টির প্রেসিডিয়াম সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১০ নভেম্বর এই সংক্রান্ত নোটিশ জারি করেছেন মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।

নোটিশে বলা হয়েছে- আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যে সকল আসনে দলের প্রাথমিকভাবে নির্বাচন হবে বলে প্রতীয়মান হয়েছে, সেই সকল আসনের সকল কমিটি (জাতীয় পার্টি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন) গঠন, পুনর্গঠন ও বাতিল- ঐ সকল এলাকায় প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত সংসদ সদস্য প্রার্থীদের সম্মেলনের মাধ্যমে গঠন করবেন এবং গঠনকৃত কমিটিসমূহ জেলা জাতীয় পার্টি অনুমোদন করবে।

উক্ত আসনের অন্তর্গত কমিটি গঠন করার জন্য জেলা জাতীয় পার্টি মনোনীত ব্যক্তিকে সহযোগিতা করবেন।

অফিস আদেশের অনুলিপি জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর পাঠানো হয়েছে।

দলের সের্বাচ্চ নীতিনির্ধারনী সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী- চকরিয়া উপজেলা, চকরিয়া পৌরসভা, মাতামুহুরি ও পেকুয়া উপজেলা কমিটি গঠন করবেন পার্টির ভাইসচেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি হাজী মোহাম্মদ ইলিয়াস।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •