লাইফস্টাইল ডেস্ক:
শীত আসার আগেই অনেকেই এই সময়টায় জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন। আর মহামারি করোনাও নতুন করে প্রস্তুতি নিচ্ছে দ্বিতীয় ওয়েভের মাধ্যমে আক্রমণের।

জ্বর হলেই অনেকে আতঙ্কে থাকেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের।
করোনা আর সাধারণ ফ্লুর লক্ষণগুলো আলাদা করে জানলে অহেতুক ভয় বা আতঙ্ক এড়ানো সম্ভব। আর সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়ে দ্রুত সুস্থ হয়ে যাওয়া যাবে। সাধারণত

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে পরবর্তী পাঁচ দিন থেকে দু’ সপ্তাহ সময়ের মধ্যে শরীরে এর লক্ষণ দেখা যাবে।

আপনি যদি করোনায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার বেশ কয়েটি লক্ষণ দেখা দিতে পারে। এর মধ্যে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে। এসব লক্ষণের পাশাপাশি মাঝে মধ্যে শরীর ব্যথা, মাথা ব্যথা, ক্লান্তিবোধ ও গলা ব্যথা হতে পারে। তবে হালকা ডায়রিয়াও হতে পারে। কোনো কোনো সময় নাক দিয়ে পানিও পড়তে পারে। তবে খুব কম। কিন্তু কখনো চোখ দিয়ে পানি পড়ে না। আর ওইসব উপসর্গ হলেই করোনার চিন্তা করবেন না। কারণ এগুলো হলো সাধারণ ফ্লুর লক্ষণ।

হঠাৎ করেই ঠাণ্ডা বা বেশি গরম পড়লে ফ্লু হতে পারে। এসময় হালকা কাশি থাকতে পারে। সেই সঙ্গে শরীর ব্যথা, গলা ব্যথা, নাক দিয়ে পানি পড়া ও হাঁচি আসতে পারে এবং সঙ্গে হালকা জ্বরও আসতে পারে। কিন্তু ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্ট হয় না।

করোনার লক্ষণ দেখা দিলে নিজেকে আলাদা করে নিন। মানুষের মধ্যে যাবেন না। আর অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে ও চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে ওষুধ খেতে হবে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, কোয়ারেন্টাইন এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মাধ্যমে সংক্রমণ কমিয়ে আনা যেতে পারে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •