কুতুবদিয়া সংবাদদাতা:
ধানমন্ডি ৩২নং বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের দায়িত্বে থাকা মোজাম্মেল হক কুতুবীর ৩য় জানাজা কুতুবদিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জানাজা শেষে কুতুবদিয়ায় কৈয়ারবিল ইউনিয়নের বিন্দাপাড়ার কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন তিনি।

মরহুম মোজাম্মেল হক কুতুবী কুতুবদিয়া দ্বীপের কৈয়ারবিল ইউনিয়নের বিন্দাপাড়ার মৃত হাজি এবাদুল্লাহর ছেলে। সোমবার (৯ নভেম্বর) সকাল ১০ টায় তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানা গেছে, তিনি ১৯৯১ সনের প্রলংকরী ঘূর্নিঝড়ে একই পরিবারের মা, বাবা, ভাই, ভাতিজা, ভাইপোসহ ১৭ জন সদস্য হারান। সেই সময়ে মোজাম্মেল হক কুতুবী কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯১ সনের ঘূর্ণিঝড়ের পর কুতুবদিয়া দ্বীপের ঘূর্ণিদূর্গত শোকার্ত মানুষের পাশে এলে ঐসময়ে  স্বজনহারা মোজাম্মেল হক কুতুবীকে সাথে করে নিয়ে যায়। তখন থেকে তিনি ধানমন্ডি ৩২নং বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে কর্মরত ছিলেন।

রবিবার (৮ নভেম্বর) সকাল ১১ টা ৪৫ মিনিটে বাংলাদেশ মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

উল্লেখ্য, তিনি রামুর প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা রশিদ আহমদ বি.এ এর জামাতা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •