মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

মেজর (অবঃ) সিনহা মোঃ রাশেদ খান হত্যা মামলা বাতিল চেয়ে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে দায়ের করা রিভিশন আবেদনটির গ্রহনযোগ্যতা নিয়ে শুনানী মঙ্গলবার ১০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি এডভোকেট ফরিদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মেজর (অব:) সিনহা মোঃ রাশেদ খান হত্যা মামলা বাতিল চেয়ে মামলার প্রধান আসামী লিয়াকত আলী’র পক্ষে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির নবীন সদস্য এডভোকেট মোঃ ফারহান শাহরিয়ার বিন নুর গত ৪অক্টোবর কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে রিভিশন আবেদনটি দায়ের করেছিলেন। যার নম্বর-ফৌজদারী রিভিশন আবেদন : ১৮৯/২০২০ ইংরেজি। ওকালত নামায় কক্সবাজারের আরেক নবীন আইনজীবী এডভোকেট মাহমুদুল হক (মাহমুদ) এর স্বাক্ষর রয়েছে।

গত ২০ অক্টোবর রিভিশন আবেদনটি ত্রিপক্ষীয় শুনানীর মাধ্যমে আদেশের দিন ধার্য ছিল। এডভোকেট মোঃ ফারহান শাহরিয়ার বিন নুর রিভিশন আবেদনটি লিয়াকত আলী’র পক্ষে আদালতে দায়ের করলেও কুমিল্লা আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট মাসুদ সালাহ উদ্দিন ও কুমিল্লার এডভোকেট এম.এম হাসান আদনান রিভিশন আবেদনটি দায়েরের দিন গত ৪অক্টোবর ও গত ২০অক্টোবর আদালতে শুনানী করেন। কক্সবাজার আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট মোঃ ফারহান শাহরিয়ার বিন নুর ও এডভোকেট মাহমুদুল হক (মাহমুদ) উভয় দিন রিভিশন আবেদনটির কোন শুনানীতে অংশ নেননি।

গত ২০ অক্টোবর শুনানীতে সিনহা মোঃ রাশেদ হত্যা মামলার বাদী শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস এর প্রধান আইনজীবী এডভোকেট মোহাম্মদ মোস্তফা রিভিশন আবেদনটি শুনানীর জন্য বাদীনির পক্ষে সময় প্রার্থনা করায় বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে আবেদনটি পরবর্তী ধার্য দিন মঙ্গলবার ১০নভেম্বর শুনানীর জন্য দিন ধার্য্য করেন।রিভিশন আবেদনটির শুনানীতে রাষ্ট্র পক্ষে পিপি এডভোকেট ফরিদুল আলম ঘোর বিরোধিতা করে আংশিক শুনানী করেন। মঙ্গলবার ১০ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষও বিস্তারিত শুনানী করার কথা রয়েছে।

গত ৩১ জুলাই রাত্রে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের টেকনাফের বাহারছরা মারিশবনিয়া এপিবিএন চেক পোস্টে পুলিশের গুলিতে খুন হন মেজর (অবঃ) সিনহা মোঃ রাশেদ খান। পরে গত ৫ আগস্ট সিনহা’র বড়বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস (৪২) বাদী হয়ে পুলিশের চাকুরী থেকে বরখাস্ত হওয়া লিয়াকত আলী, সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, নন্দলাল রক্ষিত, সাফানুর করিম, কনস্টেবল কামাল হোসেন, কনস্টেবল আবদুল্লাহ আল মামুন ও এএসআই লিটন মিয়া সহ ৯জনকে আসামী করে টেকনাফ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। যার টেকনাফ থানার মামলা নম্বর : ৯/২০২০, জিআর নম্বর : ৭০৩/২০২০ ইংরেজি (টেকনাফ)। এ মামলায় পদ্ধতিগত আইনী ত্রুটি আছে দাবি করে মামলাটি বাতিল চেয়ে ক্রিমিনাল প্রসিডিওর এর ৪৩৫/৪৩৯ ধারায় প্রধান আসামী লিয়াকতের পক্ষে গত ৪ অক্টোবর কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এর আদালতে রিভিশন আবেদনটি ফাইল করা হয়েছিলো।

মঙ্গলবার ১০ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ও বাদীনী শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস পক্ষে শুনানীর পর বিজ্ঞ আদালতের আদেশ উপর নির্ভর করবে-রিভিশন আবেদনটির ভবিষ্যত কি হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •