মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নে সালিশ বৈঠকে কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষতের ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামী সাবেক এএসআই বকতিয়ার উদ্দিন ভুট্টোকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
রবিবার দুপুর ২টায় চকরিয়া বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নির্দেশে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টো ডুলাহাজারা ইউনিয়নের বৈরাগিরখীল এলাকার বাসিন্দা মৃত ফয়েজ আহমদের পুত্র। তিনি সর্বশেষ রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শকের দায়িত্বরত ছিলেন।
ঘটনার পরে ডিপার্টমেন্টের উপরস্থ মহলের নির্দেশে তাকে চাকুরী থেকে বরখাস্ত করেছে বলে জানা যায়। ঘটনা সুত্রে জানা গেছে, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বসা পারিবারিক শালিসে প্রতিপক্ষের মা সহ তিন সহোদরকে বীভৎস ভাবে কুপিয়ে জখম করে পুলিশের এএসআই বকতিয়ার। দুই সহোদরকে বেপরোয়া আঘাতে ক্ষত-বিক্ষত করায় এখনো একজন পঙ্গুত্বের দিকে ধাবিত হচ্ছে। আহতরা মৃত ডা. আবু তাহেরের ছেলে আবু দারদা, নোমান, কামরুল, তাদের মা রহিমা আক্তার।
গত ১৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০ টার এ ঘটনায় পরদিন পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রধান করে ১০ জনকে আসামী করে আহতদের পরিবার মামলা দায়ের করে। পরে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে সত্যতা পাওয়ায় তাকে সাসপেন্ড করেন।
রবিবার দুপুরে চকরিয়া বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলায় জামিনের আবেদন করলে মহামান্য আদালত তার আবেদন নাকচ করে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। বাদী পক্ষের আইনজীবী লুৎফুর কবির মামলার প্রধান আসামী সাবেক এএসআই বকতিয়ার উদ্দিন ভুট্টোর গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •