শাহিদ মোস্তফা শাহিদ :
কক্সবাজারের ঈদগাঁও ঈদগড় সড়কে হিমছড়ি ঢালা নামক স্থানে আলোচিত শিশুশিল্পী জনি দে রাজ হত্যায় জড়িত সন্দেহে সিএনজি চালক আমান উল্লাহকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আজ শনিবার (৭ নভেম্বর) সকালে উপজেলার ঈদগড় থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ওসি মোহাম্মদ আলী গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গ্রেপ্তারকৃত সিএনজি চালক আমান উল্লাহ শিশুশিল্পী জনি হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন আসামি ছিল। হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই সে পলাতক ছিল। তাকে গ্রেপ্তারের পর শনিবার দুপুরে জনি দে রাজ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। যদিওবা গ্রেফতারকৃত সিএনজি চালক আমান উল্লাহ প্রকাশ চুনাইচ্ছাকে ঘটনার পরদিন স্থানীয় পুলিশ আটক করছিল। ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সংশ্লিষ্টটা না পাওয়ায় স্থানীয় এক প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যক্তির জিম্মায় ছেড়ে দিয়েছিল। প্রসঙ্গতঃ গত ৮অক্টোবর কক্সবাজারের কিশোর সংগীত শিল্পী জনি দে-কে রাজ চট্টগ্রামের পটিয়ায় অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের হিমছড়ি এলাকায় দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করে। নিহত জনি দে রাজ রামু উপজেলার ঈদগড়ের চরপাড়া এলাকার তপন দে’র ছেলে। এ সময় সিএনজি অটোরিকশায় থাকা আরও একজন যাত্রী মোহাম্মদ কালু নামের এক দিনমজুর নিহত হন। এরপর থেকেই ওই সিএনজি চালক পলাতক ছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •