শাহিদ মোস্তফা শাহিদ :

কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের আওতাধীন ঈদগাঁও ভোমরিয়া ঘোনা রেঞ্জের বহুল বিতর্কিত রেঞ্জ কর্মকর্তা হাফিজুর রহমানকে অবশেষে পার্বত্য অঞ্চলের লামা ডিভিশনে বদলী করা হয়েছে। বন বিভাগের দায়িত্বশীল একটি সূত্রে বদলীর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাকে চট্টগ্রাম অঞ্চলের বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক কার্যালয় থেকে বদলী করা হয় বলে জানা গেছে। গতকাল ৪ নভেম্বর তাকে এক পরিপত্রের মাধ্যমে বদলী করে বান্দরবানের লামা ডিভিশনের সংযুক্ত করা হয়েছে। প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, এই বির্তকিত রেঞ্জ কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান ঈদগাঁও ভোমরিয়া ঘোনা রেঞ্জে যোগদানের পর থেকে অসহায় দিনমজুর পরিবারের উপর মাস্টার রোল করে বর্বর নির্যাতন করে আসছিল। কথায় কথায় গুলি বর্ষন, চাঁদার দাবীতে উচ্ছেদের নামে শত বছরের পুরোনো বসতবাড়ি ভাংচুর, নিজ অফিসের স্টাফদের মারধর, নারী কেলেঙ্কারি, গাছ চোরদের সাথে সংখ্যতা, বালি উত্তোলনের মেশিন ও সরবরাহের যানবাহন জব্দ করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়া, সরকারী গাছ চুরিতে সহায়তা করা, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সামাজিক বনায়নের প্লট বিক্রি, সরকারি গাছ নষ্টের অভিযোগ এনে পশু প্রাণীর গৃহস্থদের ধরে এনে বর্বর নির্যাতন করে টাকা বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়াসহ নানান অভিযোগে অভিযুক্ত ছিল সে৷ এসব অভিযোগে একাধিক বার অনলাইন, পত্রিকাসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয় । তার
এসব নোংরামি ছড়িয়ে পড়লেও রহস্যজনক কারণে তার বদলী হয়নি। সম্প্রতি ঈদগাঁও উত্তর ভাদিতলা গ্রামে ফাঁকা গুলি বর্ষন করে এক বৃদ্ধা নারীকে মারধর করে নির্মাণাধীন একটি ইটের তৈরি ঘর ভেঙে দেয়৷ সে ঘটনায় আহত নারীর ছেলে বাদী হয়ে রেঞ্জ কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান ও বিট কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিনসহ স্থানীয় হেডম্যান, ভিলেজারকে আসামী করে আদালতে মামলা করতে যায়। বিষয়টি বন বিভাগের উচ্চ মহলে জানাজানি হলে রেঞ্জ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিলে ভুক্তভোগী পরিবার মামলা দায়ের থেকে সরে আসে। বদলীর বিষয়টি ভোমরিয়া ঘোনা রেঞ্জ রেঞ্জের আওতাধীন জনগণের কাছে পৌঁছলে স্বস্তির নিঃশ্বাস পেলে লোকজন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •