সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ
কক্সবাজারের কলাতলী টিএন্ডটি রোড এলাকায় তিন সাংবাদিককের উপর সন্ত্রাসীর হামলা ও অপরাধীদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন। এসময় বক্তারা হামলাকারী সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানান। অন্যথায় ভিবিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন। বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সামনে অনুষ্টিত মানববন্ধনে বক্তারা এ কথা বলেন।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গণমাধ্যম সৃষ্টি লগ্ন থেকে সাংবাদিকরা নানভাবে হামলা ও মামলার স্বীকার হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় চলছে খুন, ঘুম নারকীয় হামলা ও হয়রানী মূলক মামলা মোকাদ্দমার স্বীকার। এরকম নগ্নথাবা থেকে সাংবাদিকদেরও বাঁচিয়ে তুলতে সমাজ ও রাষ্ট্রের সহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি বিনীত অনুরোধ জানান। এসময় পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী কর্তৃক তিন সাংবাদিকের উপর স্বশস্ত্র হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। বক্তারা অনতিবিলম্বে এ ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানান।। অন্যথায় বিভিন্ন কর্মসূচীর মাধ্যমে নানা আন্দোলন ও প্রতিবাদের হুশিয়ারী দেন।
এসময় বক্তারা আরো বলেন, সাংবাদিক নামধারী কতিপয় তথ্য সন্ত্রাসীরা টাকার বিনিময়ে আহত সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে প্রকাশিত কুরুচিপূর্ণ সংবাদে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানান। ওই হলুদ সাংবাদিকরা নির্যাতনের আসল ঘটনা ধামাপাচা দিতে আড়াল থেকে মোটা অংকের টাকা বিনিময়ে অপরাধীদের বাঁচাতে বিভিন্ন কলকাটি নাড়ছে। সাংবাদিক নামধারী ওইসব তথ্য সন্ত্রাসী হলুদ সাংবাকিদের এহন কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ জানান। না হয় দাত ভাঙ্গা জবাব দেওয়ার হুশিয়ারী দেন। কলাতলী টিএন্ডটি পাহাড়ীদের মতে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনার মতো ঘটনা আর যেন না ঘটে।
এসময় বক্তব্য রাখেন বায়োজষ্ট্য সাংবাদিক ফজলুল কাদের চৌধুরী, মোহনা টিভির জেলা প্রতিনিধি আমানুল বাবুল, বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি আমিনুল হক আমিন, মাইটিভির জেলা প্রতিনিধি এম সাইফুল ইসলাম, গণসংযোগ পত্রিকার মফসম্বল সম্পাদক কাজী তামজীদ পাশা এবং নিজস্ব প্রতিবেদক মিজানুর রহমান। এছাড়াও সুশীল সমাজের পক্ষে মিজবাহ উদ্দিন আপেল, জিয়া উদ্দীন ভূইয়া,ওমর ফারুক,নেজাম উদ্দিন সহ রাজনৈতিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •