ফাইল ছবি

আরটিভি : মে মাসে সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। পৌরসভার নির্বাচন ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) করতে যাচ্ছে ইসি।

সোমবার (২ নভেম্বর) আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে কমিশনের ঊদ্ধর্তন কর্মকর্তাদের মধ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভা শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেন, চলতি বছর শেষের কাছাকাছি। সামনে ২০২১ সালের জানুয়ারির মধ্যে এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে যেসব পৌরসভা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে, সেগুলোর ভোট আগামী ডিসেম্বরের শেষ দিকে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। আপাতত পাঁচ ধাপে এসব নির্বাচন শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির।
কে এম নূরুল হুদা বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলো নিয়ে সভায় দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয়েছে। এখানে সব কর্মকর্তাদের মতামত এবং পরামর্শগুলো শোনা হয়েছে। কিভাবে পৌরসভা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করা যায় সেটিও উঠে এসেছে। ভোট নিয়ে যেন স্থানীয় পর্যায়ে কোনো ধরনের বিতর্ক সৃষ্টি না হয় সেদিকেও নজর রাখার পরামর্শ রয়েছে। শিডিউল তৈরি এবং রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ থেকে শুরু করে যেগুলো করণীয়, সেগুলো ঠিক করেছি। জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে যেসব নির্বাচন ডিউ হবে, সেগুলো হয়তো আমরা করে ফেলবো, হয়তো ডিসেম্বরের শেষ দিকে। সেরকম প্রস্তুতি আমাদের আছে।
সিইসি বলেন, পৌরসভার নির্বাচন ইভিএমে হবে। উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন বা সাধারণ নির্বাচন সবগুলো ইভিএমে করা যাবে না। হয়তো কিছুসংখ্যক করা যেতে পারে, এনআইডির ডিজি পৌরসভার নির্বাচনগুলো ঠিক করার পরে যদি মনে করেন, তার ক্যাপাসিটি আছে তবে হয়তো কিছু নির্বাচন ইভিএমে করবে।
তিনি বলেন, ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত পৌরসভা, জেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের যেসব নির্বাচন ডিউ হবে, সেগুলো করা হবে। এ সময়ের পৌরসভা খালি হবে ২০টির ওপর। এছাড়া অনেকগুলো হবে উপনির্বাচন।
নূরুল হুদা আরও বলেন, আমরা আশা করি, পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন মে মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা যাবে। এগুলো ধাপে ধাপে করা হবে। কয় ধাপে নির্বাচন করা হবে এখনও আমরা ঠিক করিনি ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •