চকরিয়া সংবাদদাতা:
কক্সবাজারের চকরিয়ায় করোনা সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় নিন্ম আয়ের ২২ হাজার পরিবারকে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচী (ডাব্লিউএফপি) খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ দেয়া হয়েছে।
তারই অংশবিশেষ হিসেবে কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে ডাব্লিউএফপি কর্তৃক স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য স্থানীয় সরকারকে সম্পৃক্ত করে এ কর্মসূচীটি বাস্তবায়ন করছে চকরিয়ার বেসরকারী সংস্থা এসএআরপিভি (সোসাল এ্যাসিস্ট্যান্স এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন ফর দি ফিজিক্যালি ভালনারেবল)।
ৱবিবার সকাল ১০টায় সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক দূরত্ব বজায় রেখে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের বাস্তবায়নে লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের চকরিয়া কলেজ প্রাঙ্গনে স্থানীয় জনগোষ্ঠীদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার।
উক্ত নগদ অর্থ প্রদান অনুষ্ঠানে সু-শৃংখলভাবে বন্টনের সার্বিক সহযোগিতা করেন সাবেক ছাত্র ও যুবনেতা সাংবাদিক মোঃ নাজমুল সাঈদ সোহেল, চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তারেকুল ইসলাম লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছরোয়ার উদ্দিন, আমজাদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাইদুল হক চৌধুরী প্রমুখ।
এসএআরপিভি’র আঞ্চলিক পরিচালক কাজী মাকসুদুল আলম মুহিত জানান; এ কর্মসুচীর আওতায় করোনা সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় নিন্ম আয়ের চকরিয়া – পেকুয়ার ২২ হাজার পরিবারকে এ খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে। এ কর্মসূচীর আওতায় চতুর্থবারের মতো ডব্লিউএফপি এৱ প্রতিজনকে নগদ দুই হাজাৱ টাকা বিতরণ কৱা হচ্ছে।ইতিপূর্বে চকরিয়া উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ১৮ ইউনিয়নের ১৬ হাজার ৫শত পরিবার এবং পেকুয়ার ৭ ইউনিয়নের ৫ হাজার ৫শত পরিবার। এ কর্মসূচীর আওতায় চার মাসে চার কিস্তিতে চকরিয়ার ১৬ হাজার ৫শত পরিবারের প্রতি পরিবার পাবেন ৬০ কেজি ভাল মানের চাল, ৫ কেজি হাই এনার্জি বিস্কুট ও নগদ ৪ হাজার ৫শত টাকা পেয়েছেন।
এরই আলোকে লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধনের মাধ্যমে ৪৫২ জন উপকার ভোগীকে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।
নগদ অর্থ বিতরণকালে লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টারের দায়িত্বরত সুমাইয়া জন্নাত মুজিব শতবর্ষ ই -সেবা ক্যাম্পেইন 2020 সেবা তালিকা উপস্থিত জনসাধারণের মাঝে সচেতন সচেতনতার লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •