এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :
কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের আওতাধীন চুনতি রেঞ্জের চকরিয়াস্থ হারবাং সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ভেতরে বনবিভাগের উদ্যোগে অভিযান চালানো হয়। বনবিভাগের এ অভিযানে বনভূমি এলাকা থেকে অবৈধভাবে নির্মিত একটি টিনের বসতঘর গুড়িয়ে দিয়ে অপসারণ করা হয়। এসময় বনবিভাগের কর্মীরা ২০শতক জায়গা অবৈধ দখলদার থেকে দখল উচ্ছেদ করে উদ্ধারকৃত জায়গায় গাছের চারা রোপন করেন বনবিভাগ।

শনিবার (৩১অক্টোবর) বিকালে চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগের অধীন চুনতি রেঞ্জের চকরিয়াস্থ হারবাং গয়ালমারা এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়। বিভাগীয় বন কর্মকর্তার নির্দেশে অভিযানে নেতৃত্ব দেন দক্ষিণ বনবিভিাগের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) শওকত ইমরান আরাফাত।

বনবিভাগ সূত্রে জানাগেছে, চট্টগ্রামের দক্ষিণ বনবিভাগের অধীন চুনতি রেঞ্জের হারবাং গয়ালমারা এলাকায় সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ভেতরে বনবিভাগের জায়গা দখল করে একটি দখলবাজ চক্র অবৈধ বসতঘর নির্মাণ করেছিল। বনবিভাগের জায়গায় বসতি স্থাপনের খবর পেয়ে চকরিয়াস্থ হারবাং বিটের গয়ালমারা নামক এলাকায় বিভাগীয় বন কর্মকর্তার নির্দেশনায় সহকারী বন সংরক্ষক শওকত ইমরান আরাফাতের নেতৃত্বে চুনতি রেঞ্জ, পদুয়া রেঞ্জ, বারবাকিয়া রেঞ্জ ও মাদার্সা রেঞ্জের যৌথ উদ্যোগে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের মাধ্যমে হারবাং গয়ালমারা এলাকায় জবরদখলকৃত একটি টিনের ঘর উচ্ছেদ করে অন্তত ২০শতক বনবিভাগের জায়গা উদ্ধার করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগের চুনতি রেঞ্জের হারবাং বনবিট কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান বলেন, চুনতি রেঞ্জের আওতাধীন হারবাং বন বিটের গয়ালমারা নামক এলাকায় অবৈধভাবে বনবিভাগের জায়গায় বসতি নির্মাণের খবর পেয়ে বিভাগীয় বন কর্মকর্তার নির্দেশনায় সহকারী বন সংরক্ষক শওকত ইমরান আরাফাতের নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়। এসময়
জবরদখলকৃত একটি টিনের ঘর উচ্ছেদ করে অন্তত ২০শতক বনবিভাগের জায়গা উদ্ধার করা হয়েছে।
পরে উদ্ধারকৃত জায়গায় বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা রোপন করা হয়।
তিনি আরও বলেন, অভিযানে চুনতি রেঞ্জ ছাড়াও পদুয়া রেঞ্জ, বারবাকিয়া রেঞ্জ ও মাদার্সা রেঞ্জের যৌথ উদ্যোগে বনবিভাগের এ অভিযান পরিচালনা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •