আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশের মৎস্যখাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে মন্তব্য করে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী শ-ম রেজাউল করিম বলেছেন কাপ্তাই হ্রদে কার্প জাতীয় মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন নিশ্চিতে হ্রদকে অবৈধ দখলমুক্ত রাখার পাশাপাশি হ্রদের ভারসাম্য রক্ষায় ক্ষতিকর জাল দিয়ে মাছ ধরা নিষিদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে। এতে করে অত্রাঞ্চলের মৎস্যখাতের উন্নয়নে আমুল পরিবর্তন ঘটবে।
শনিবার রাঙামাটি সফরে এসে বিএফডিসি, বিএফআরআই ও মৎস্য অধিদপ্তর এর কর্মকর্তাদের সাথে আলাপকালে মন্ত্রী বলেন, কাপ্তাই হ্রদের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তনসহ এখানে কার্প জাতীয় মাছের উৎপাদন বৃদ্ধিতে নানামুখী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে। যার প্রেক্ষিতে আমরা আগামীতে প্রায় ১৫ হাজার মেট্রিন টন মাছ কাপ্তাই হ্রদ থেকে আহরণ করতে পারবো। মাছের উৎপাদন নিশ্চিতে প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্রগুলো সুরক্ষাসহ কাপ্তাই হ্রদের ভারসাম্য রক্ষায় অবৈধ দখলমুক্ত করার পাশাপাশি হ্রদে মাছের জন্য ক্ষতিকর নিষিদ্ধ জাল ব্যবহার বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী রেজাউল করিম।
চট্টগ্রাম ও রাঙামাটিতে তিনদিনের সরকারি সফরের অংশ হিসেবে শনিবার মন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীগণ রাঙামাটিতে এসে সকালে বিএফডিসি ও বিএফআরআই এবং মৎস্য অধিদপ্তরের কার্যক্রম পরিদর্শনের পরবর্তী মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে প্রাণিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ, প্রাণিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব তৌফিকুল আরিফ, মৎস্য অধিদপ্তরের মহা পরিচালক কাজী শামস আফরোজ ,বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন’র চেয়ারম্যান কাজী হাসান মাহমুদ, বাংলাদেশ মৎস্য গভেষণা ইন্সটিটিউট এর মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ, রাঙামাটি বিএফডিসি ব্যবস্থাপক লে. কমান্ডার তৌহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তাপস রঞ্জন ঘোষ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহীদুজ্জামান মহসিন রোমান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •