নাছির উদ্দিন আল নোমানঃ
কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও বাজারের ডিসি সড়কে বাঁধ দিয়ে বালি উত্তোলনের ড্রেজার মেশিনের পাইপ বসানো হয়েছে।
২৭ অক্টোবর ভোর রাত থেকে বালুখেকোচক্রের বসানো এই পাইপের কারণে চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। সড়কে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। দুর্ভোগের শিকার পথচারীরা।
সরেজমিনে দেখা যায়, ঈদগাঁও বাসষ্টেশন-বাজার সংযোগ সড়কের পুরাতন পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র গেইট সংলগ্ন স্থানে প্রধান সড়কের উপর প্রায় দুই ফিট প্রস্থের আড়াআড়ি বাঁধ দিয়ে ভিতরে লোহার পাইপ স্হাপন করা হয়েছে। আবার পাইপের উপরস্থ বাঁধের উভয় পাশে কংক্রিট ও সিমেন্ট দিয়ে ঢালাই করে পাইপটিকে স্থায়ী রূপ দেয়া হয়েছে৷
প্রধান সড়ক সংলগ্ন ঈদগাঁও নদীতে অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালি উত্তোলনের জন্যই এই পাইপ বসানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন অনেকেই।
সরেজমিন দেখা যায়, মেইন রোড দখল করে স্হাপিত উক্ত বাঁধের পূর্বপাশে ১০ গজের মধ্যেই আরো দুটি বাঁধ রয়েছে। ১০ / ১২ গজের মধ্যেই এভাবে পরপর তিনটি বাঁধের ফলে যানবাহন চলাচল বিঘ্নিত হওয়ায় বাজারে যানজট ক্রমশঃ বাড়ছে।
মঙ্গলবার সপ্তাহিক হাঁটের দিন হওয়ায় উক্ত স্হানে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয় বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা।
ঈদগাঁও হাইস্কুল গেইটের পূর্বপাশ থেকে বাসষ্টেশন পর্যন্ত প্রধান সড়কের মাত্র কয়েক গজের মধ্য দিয়েই প্রবাহিত হচ্ছে ঈদগাঁও নদীর মূলস্রোতধারা। ড্রেজার মেশিন বসিয়ে এখান থেকে এ ভাবে বালু উত্তোলন করা হলে বর্ষা মৌসুমে প্রধান সড়ক নদীগর্ভে বিলীন হয়ে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা করেছেন সচেতন মহল। এ ছাড়াও সরকারী বেসরকারী বিভিন্ন স্হাপনা ভাঙ্গনের মুখে পড়তে পারে বলে জানিয়েছেন বাজারবাসী।
প্রধান সড়ক দখল করে স্থাপিত বালি উত্তোলনের পাইপ উচ্ছেদ ও এতে জড়িত ব্যাক্তিদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছে বৃহত্তর ঈদগাঁওর বিশিষ্টজনেরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •