আনম রফিকুর রশীদ


মেডিসিন ব্যবসামূলক ব্যবসা আর ফার্মাসিস্ট হচ্ছেন, সেবক। কানাডায় বাংলাদেশিরা এই অনুসরনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

বাংলাদেশে লোকে বলে মেডিসিন লাভজনক ব্যবসা। ফার্মেসি, প্যাথলজি, হাসপাতাল সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। তা সত্য হোক বা মিথ্যে হোক, মানুষ না থাকলে ব্যবসা কিংবা সেবা কোনোটাই ত হবে না। তাই বলছিলাম কী, কানাডা প্রবাসীদের অনুসরণ করুক, দেশীয় ফার্মেসির মালিকেরা।

বাংলাদেশে প্রতিদিন উল্লেখযোগ্য সংখ্যক লোক করোনা সনাক্ত হচ্ছেন। আসছে শীত মৌসুমে এই সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ার সম্ভাবনা। জনগণকে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গের আঘাত সামলে উঠতে ফার্মেসিসমূহ কানাডা প্রবাসীদের মতো মানবিক দৃষ্টান্ত প্রতিষ্ঠা করুক!

বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির উদ্যোগে কমিউনিটি আরেক্স বাংলাদেশি ফার্মেসির সহায়তায় প্রবাসী বাঙালিদের করোনার আসন্ন আঘাত থেকে বাঁচাতে বিনাখরচে ফ্লু শট দেওয়ার কাজ সম্পন্ন করেছে।

কমিউনিটি আরেক্স বাংলাদেশি ফার্মাসি গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. ইব্রাহিম খান, ফার্মাসিস্ট নাসিমা খান, ফার্মাসিস্ট নাদিম খান ও ফাহিম খান এতে সক্রিয় অংশগ্রহণ ও তত্ত্বাবধান করেন।

কানাডার ক্যালগেরির নিয়মিত সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান কমিউনিটি আরেক্স বাংলাদেশি ফার্মেসি গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. ইব্রাহিম খান বলেন, বৈশ্বিক মহামারীর বর্তমান পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে আলবার্টা হেলথ সার্ভিসের পৃষ্ঠপোষকতায় আমরা প্রবাসী বাঙালি কমিউনিটির স্বাস্থ্যের দিক বিবেচনা করেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

প্রফেসর ড. ইব্রাহিম খান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও এশিয়ান উইমেন ইউনিভারসিটির খ্যাতিমান অধ্যাপক, কক্সবাজারের খুটাখালীর সুসন্তান ও বর্তমানে কানাডিয়ান সিটিজেন।

সূত্রঃ দৈনিক যুগান্তর

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •