সংবাদদাতা:
শারদীয় দুর্গাপূজার মহা অষ্টমীর দিন ২৪ অক্টোবর আনুষ্টানিক উদ্বোধন করা হয়েছে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় মহাশশ্মানের উন্নয়ন নকশা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, কক্সবাজার শহরের বাঁকখালী নদী সংলগ্ন কস্তুরাঘাট এলাকায় অবস্থিত সনাতন সম্প্রদায়ের একমাত্র শশ্মানের এই জমিতে নানা উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। দীর্ঘদিনের প্রত্যাশিত এই উন্নয়ন প্রকল্পের মাস্টার প্ল্যান উদ্বোধনের মাধ্যমে শুরু হবে উন্নয়ন কর্মকান্ড। প্রায় দুইশত বছরের আগের পুরানো এই শশ্মানে শবদাহ পুড়ানো হয়। এখন এই শশ্মান জমি বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ভাগ করে নানা উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এখানে একটি দর্শনীয় দৃষ্টিনন্দন শিব কালী মন্দির হবে, দৃষ্টিনন্দন জলাধার, ওয়াকওয়ে, বাগান, অনুষ্ঠান মাঠ, অফিস, সেবায়েত ঘর, শবদাহ শেড , শেল্টার শেড, স্নাগার। মহাশশ্মান উন্নয়ন প্রকল্পে সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন বক্তারা।

শহরের গোলদীঘির পাড় চত্বরে মহাশশ্মানের উন্নয়ন নকশাঁ উদ্বোধন করেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও মহাশশ্মান কমিটির প্রধান উপদেষ্টা এডভোকেট রনজিত দাশ, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্ট্রের ট্রাষ্টি বাবুল শর্মা, কক্সবাজার পৌরসভার কাউন্সিলর রাজবিহারী দাশ, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহসভাপতি রতন দাশ, সাবেক কাউন্সিলর উদয় শংকর পাল মিঠু, উজ্জ্বল কর, বিপুল সেন, কেন্দ্রীয় মহাশশ্মান পরিচালনা কমিটির সভাপতি স্বপন পাল নাজির, কার্যকরী সভাপতি সাংবাদিক দীপক শর্মা দীপু, উন্নয়ন কমিটির আহবায়ক কাঞ্চন দাশ, জেলা পূজা কমিটির কর্মকর্তা বিশ^জিত পাল বিশু, স্বরুপম পাল পাঞ্জু, এডভোকেট সেবক পাল, দুলাল দাশ, স্বপন দাশ, সাংবাদিক চঞ্চল দাশগুপ্ত, সাংবাদিক বলরাম দাশ অনুপম, পৌর পূজা কমিটির সভাপতি বেন্টু দাশ, সাধারণ সম্পাদক মিটন দে ভুলুকসহ জেলা, উপজেলা, পৌর ও বিভিন্ন পূজা মন্ডপের কর্মকর্তাবৃন্দ।