সংবাদদাতা:
জলবায়ুর ন্যায়্যতা ও লৈঙ্গিক ন্যায়বিচারের দাবিতে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পদযাত্রা করেছে একশনএইড বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) বিকেল ৪টায় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের কলাতলী পয়েন্ট থেকে শুরু হয় পদযাত্রা। শেষ হয় লাবনী পয়েন্টে।

“বাঁচান জন্য হাটুন (Walk for Survival)” শীর্ষক শিরোনামে আয়োজিত এই পদযাত্রায় ১০০-এর বেশি মানুষ অংশ নেয়।

এসময় বিশ্বের লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা বন্ধ করে, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা এবং পরিবেশের সুরক্ষায় সবুজ অরণ্য পুরুদ্ধারের মাধ্যমে আরো উন্নত ও সুন্দর বিশ্ব ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহবান জানানো হয়।

জয়বায়ু ও নারীর প্রতি বেড়ে চলা অবিচারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রচারণার প্রথম আয়োজন এটি।

এসময় একশনএইড বাংলাদেশের জলবায়ুর ন্যায্যতা ও সাড়াপ্রদান প্রকল্পের প্রধান সৈয়দ তানজির হোসেন বলেন, জলবায়ু সংকটের কারণে প্রতিনিয়ত আমরা বাস্তুচ্যুত হচ্ছি। বন্যা ও ঘূর্ণিঝড়ের মতো দুর্যোগে ঘরবাড়ি হারিয়ে বাধ্য হয়ে আশ্রয়কেন্দ্রে মাথা গোঁজার জায়গা খোঁজেন মানুষ। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সারাবিশ্বে বাস্তুচ্যুত মানুষ এবং লিঙ্গ-ভিত্তিক সহিংসতার শিকার হওয়া সকলের সাথে একাত্মতা জানাতেই এ পদযাত্রার আয়োজন বলেও জানান তানজির হোসেন।

এদিকে, একশনএইড বাংলাদেশের ‘মানবিক সাড়াপ্রদান’ বিভাগের প্রধান আব্দুল আলীম বলেন, সম্প্রতি প্রাকৃতিক দুর্যোগের মাত্রা বেড়েছে। চলতি বছর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সৃষ্ট বেশকিছু প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়েছি আমরা। প্রতিক্রিয়া জানাতে হয়েছিল। তাছাড়া, কোভিড-১৯ মহামারিও বহুমানুষকে দারিদ্র্যের দিকে ঠেলে দিয়েছে। দুর্যোগ থেকে বাঁচতে পরিবেশ ও জয়বায়ুর সুরক্ষা নিশ্চিত করা জরুরি।

জলবায়ুর ন্যয্যতা নিয়ে কাজ করেন, একশনএইডের এমন আরেক কর্মকর্তা আনহারা রাব্বানী বলেন, জলবায়ু সংকটের কারণে প্রাকৃতিক জীব-বৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়েছে। সংকট নিরসনে আমাদের এখনই উদ্যোগ নিতে হবে। একশনএইড বাংলাদেশের কর্মীসহ কক্সবাজারের স্থানীয় পরিবেশবাদী সংগঠন ‘ইয়্যুথ নেট’ এর প্রতিনিধিরাও অংশ নেন পদযাত্রায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •