মোহাম্মদ হোসেন,হাটহাজারী :
অভিযানের দৃশ্য দেখলে মনে হবে পাহাড়ে কোন একটি বাংলা ছবির শুটিং হচ্ছে। বাস্তবে তা কিন্ত নয়,মূলত দৃশ্য হচ্ছে পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছেন ইউএনও মোহাম্মদ রুহুল আমিন। রোববার (১৮ অক্টোবর) বিকেল দিকে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ফরহাদাবাদ ১ নং ওয়ার্ড : কাঞ্চনপুর এলাকার পাহাড় কাটার খবর পেয়ে ম্যাজিস্ট্রেট পুলিশ ফোর্স নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেন। গত ৪ অক্টোবর প্রিন্ট মিডিয়া ও অনলাইন পোর্টেল এ সংবাদ প্রকাশের পর সংশ্লিষ্ট কতৃৃৃৃপক্ষের নজরে আসে।

প্রায় ১২ কিলোমিটার পাহাড়ের ভিতরে বিভিন্ন স্থানে কৌশলে কাটা হচ্ছে একই সাথে পাহাড়ে নিচে গর্ত করে উত্তোলন করা হচ্ছে বালু। ইউএনও পুলিশ ফোর্স
সঙ্গে নিয়ে পাহাড় কাটার স্থানে অভিযান চালান। অভিযানের খবর আগেই জানতে পেরে মাটি কাটার সঙ্গে জড়িতরা পালিয়ে যায়।

অভিযান পরিচালনা করে ১টি ড্রেজার ও ১০০ফুট পাইপ জব্দ করেন ভ্রাম্যমান আদালতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তবে কাউকে আটক করতে পারেনি। প্রায় এক
ঘন্টা পায়ে হেটে পাহাড়ের অভিযান চালায় ম্যাজিস্ট্রেট।এ ভাবে প্রতিদিন পাহাড় কাটার কারনে উজাড় হচ্ছে বিশাল বনভূমি, ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ।
তা ছাড়া ট্রাক দিয়ে অতিরিক্ত মাটি বহনের ফলে নষ্ট হয়ে গেছে এলাকার রাস্তাঘাট।

ইউএনও রুহুর আমিন বলেন,গোপনে সংবাদ পেয়ে আমি পুলিশ ফোর্স নিয়ে গভীর পাহাড়ে অভিযান পরিচালনা করি,প্রায় ১২ কিলোমিটার গহীন জঙ্গলে পাহাড় কাটার দৃশ্য রীতিমতো আশ্চর্যজনক ব্যাপার। অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •