ভয়েসওয়াল্ড২৪ ডটকম নামের একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত ‌’দরিয়ানগরে জুনিয়র-সিনিয়র মিলে ইয়াবা কারবার, পলাতকরা ফিরেছে এলাকায়’ শীর্ষক খবরটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। ওই প্রতিবেদনের অধিকাংশ তথ্যই সত্য। তবে রয়েছে গুরুতর অসঙ্গতি বা চরম মিথ্যাও। প্রতিবেদক অনেক নিরীহ মানুষকে ইয়াবা ব্যবসায়ী বানিয়েছেন, আবার বড় ডিলার ও তাদের সাব এজেন্টদের একাংশকে বাদ দিয়েছেন। বাদপড়াদের মধ্যে রয়েছে অতীতে হাতেনাতে ধরা পড়া বর্তমান ইয়াবা ব্যবসায়ীদের একাংশও। এদের আবার নিয়ন্ত্রণ করে আশ্রয়ন প্রকল্পের ও সমাজের নেতা নামধারী ছদ্মবেশী ইয়াবা গডফাদাররা। এদের সন্তানেরা বেশ কয়েকবার হাতেনাতে ধরাও পড়েছে। তবু এই প্রতিবেদকের তালিকায় তাদের নাম আসে না। আসে আমার মত বহু নিরীহদের নাম। বুঝাই যাচ্ছে, কাদের স্পর্শে এ নিউজ করেছেন তিনি!
এরআগেও অপপ্রচারকারীরা আমাকে ইয়াবা ব্যবসায়ী বানানোর চেষ্টা করেছে। কিন্তু চোরের ১০ দিন গৃহস্তের ১ দিন; অপরাধ করলে ধরা পড়বেই। আমি কি কভু ইয়াবা নিয়ে ধরা পড়েছি? আমিতো ইয়াবা ব্যবসার বিরুদ্ধে শুরু থেকেই সোচ্চার রয়েছি। আর এ কারণে সংঘবদ্ধ ইয়াবা কারবারী ও তাদের গডফাদাররা আমাকে গত বছর মিথ্যা মানব পাচার মামলার আসামী বানিয়ে দিয়েছে। আমাদের পরিবার একাত্তরে পাক হানাদার ও রাজাকারদের হাতে নির্যাতিত একটি পরিবার। সেই আমার মায়ের নামটি বিকৃত করে লেখা হয়েছে উক্ত অনলাইনের খবরে। আমার মা এবং আমি এই ধরনের অপসাংবাদিকতার বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিতে পারি। কিন্তু এরজন্য যে খরচাদি রয়েছে, তা আমার বা আমাদের নেই। তা আপনারা সরেজমিনে এসে আমার বাড়ীঘর দেখলেই বুঝতে পারবেন। মূলত আমি একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, শ্রমিকের মতোই পেটে-ভাতে চলি। জনগণ আমাকে ভালবাসে- আমাকে তারা আশ্রয়কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করেছেন; এটাই আমার অপরাধ!
প্রতিবেদক আরো দাবী করেছেন- ইয়াবা কারবারীরা মেজর সিনহা হত্যার পর এলাকায় ফিরে এসেছে। আসলে এ তথ্যটাও ভূয়া। বেশিরভাগ ইয়াবা কারবারী লকডাউনের আগেই জেল থেকে ছাড়া পেয়ে এলাকায় ফিরেছে। তারাতো প্রকাশ্যেই রয়েছে। আমরা দেখি, তারা তখনই আত্মগোপনে থাকে; যখন তাদের গ্যাং এর কোন সদস্য ধরা পড়ে। সবশেষে পবিত্র কোরআনের একটি বাণীর কথা উল্লেখ করতে চাই, যেখানে স্পষ্ঠভাবে বলা হয়েছে- ‘তোমরা সত্যকে মিথ্যার সাথে মিশ্রিত করোনা, জেনেশুনে সত্যকে গোপন করো না।’
সুতরাং সত্যকে মিথ্যার সাথে মিশ্রিতকারীদের প্রতি, তাদের নেতাদের প্রতি এবং তাদের মিডিয়ার প্রতি আমি ঘৃণা প্রকাশ করছি।

মো. জয়নাল আবেদীন
সাধারণ সম্পাদক
দরিয়ানগর বড়ছড়া আশ্রয়ণ কেন্দ্র, ঝিলংজা, কক্সবাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •