সিবিএন ডেস্ক:
নাগরিকদের জীবন মান উন্নয়নে ব্যর্থতার দায় স্বীকারের কয়েক দিনের মাথায় আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ২৫ হাজার বাড়ি নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। বুধবার টাইফুন বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে এই প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। সেসময় নাগরিকদের ৫০ বছরের বেশি পুরনো বাড়িতে থাকতে হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেন কিম জং উন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক সামরিক মহড়ায় গত শনিবার সেনা সদস্যদের আত্মত্যাগের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কিম জং উন। ওই সময় আর নাগরিকদের জীবনের মান উন্নয়নে ব্যর্থতার জন্য ক্ষমা চান তিনি। একপর্যায়ে তাকে কেঁদে ফেলতে দেখা যায়।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর ওই অনুষ্ঠানের পর সাম্প্রতিক ঘূর্ণিঝড়ে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকটি এলাকা পরিদর্শনে যান উত্তর কোরিয়ার নেতা। ওইসব এলাকায় কয়েক দশকের পুরাতন ঘরবাড়ি দেখে তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। ঘূর্ণিঝড়ে সেগুলোর বেশিরভাগই ধ্বংস হয়ে গেছে। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ জানিয়েছে, এসব এলাকায় দ্রুত এবং উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে বাড়ি ঘর নির্মাণের উচ্চাভিলাষী প্ররিকল্পনা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন কিম জং উন। দেশের সব শ্রেণীর নাগরিককে ‘৮০ দিনের’ অর্থনীতি পুনরুদ্ধার কর্মসূচি শুরুর আহ্বানও জানান তিনি।

আগামী জানুয়ারিতে কিমের দলের জাতীয় সম্মেলন। ওই সম্মেলনে পরবর্তী পাঁচ বছরের কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করা হবে। তার আগেই প্রতিশ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়নে পৌঁছাতে চান কিম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •