বার্তা পরিবেশক :
কক্সবাজারের সদর উপজেলা ঈদগাঁহ বাঁশঘাটা এলাকায় চাঁদার দাবীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ শামশুল হুদা’কে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় কক্সবাজার সদর থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

দায়েরকৃত এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ঈদগাঁও বাঁশঘাটা এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ শামশুল হুদা নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ‘চৌধুরী ফার্মেসী’তে পল্লী চিকিৎসক হিসেবে সেবা দিয়ে আসছেন। এদিকে কিছু দিন ধরে ওই এলাকার ক্রাস সৃষ্টিকারী একদল চিহ্নিত চাঁদাবাজ তাঁর কাছ থেকে ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে আসছিল। নয়ত ওই এলাকায় ব্যবসা বানিজ্য করতে পারবেনা বলেও হুমকি দিয়েছিল। কিন্তু তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে চাঁদা দিতে রাজী হননি। এরই প্রেক্ষিতে গত ১২ অক্টোবর সোমবার রাত ৯ টার ৫-৬ জন সন্ত্রাসী চাঁদার দাবীতে ধারালো অস্ত্র ও লোহার রড় নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। হামলাকারীদের আঘাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ শামশুল হুদা’র ডান হাত ভেঙ্গে যায় এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারাত্মক জখম হয়।

এজাহারে উল্লেখিত চাঁদার দাবীতে হামলাকারীরা হলেন ওই উপজেলার ইউছুপের খিল (৬ নং ওয়ার্ড) ইসলামাবাদ এলাকার মৃত ছৈয়দ নুরের ছেলে দিদারুল ইসলাম (৩৩) ও মোঃ মহসীন (২৪) এবং জালালাবাদেও মৃত ছৈয়দ রহমানের ছেলে আব্দু শুক্কুর (৪২) সহ ৫-৬ জনের একটি দল। সন্ত্রাসীরা মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলার পাশাপাশি দোকানে ভাংচুর চালায়। যার ক্ষতি প্রায় ৫০ হাজার টাকারও বেশি। এছাড়া তাঁর ছেলের ব্যবহৃত ৬০ হাজার টাকা দামের দামী মোবাইল নিয়ে যায়। ড্রয়ারে থানা নগদ ৮ হাজার টাকাও নিয়ে যায়। হামলা শেষে তারা প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে যায় তাদের দাবীকৃত চাঁদা না দিলে ওখানে ব্যবসা করতে পারবেনা। প্রয়োজনে খুন খারাপি হয়ে যাবে। এ অবস্থায় জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ডাঃ শামশুল হুদা। এই মুহুত্বে স্বাধীন দেশে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা চেয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •