মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু:
রামু উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (কৃষি) শংকর শর্মা শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে পরলোকগমন করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল (৩৭) বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ফুসফুসে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ভারতের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন। মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউন হলে তিনি আর ভারতে যেতে পারেনি। এর পর থেকে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন। সেখান থেকে আজ আসার পথে তার অবস্থার অবনতি হলে ততক্ষণে পটিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তিনি মৃত্যু বরণ করেন। তিনি এক ছেলে, স্ত্রী,পিতা,মাথাসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে যান। তার গ্রামের বাড়ী কক্সবাজারের জিলাংঝা ইউনিয়নের খরুলিয়া গ্রামে। তিনি প্রায় ১০ বছর যাবৎ সুনামের সহিত কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। এদিকে তার মৃত্যুর খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের সকল শ্রেণী পেশার মানুষ ও স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের মাঝে নেমে আসে শোকের ছায়া। এদিকে তরুণ এই মেধাবী শিক্ষকের করুন মৃত্যুতে তার কর্মস্থলের সহকর্মী,পরিচালনা কমিটি, ছাত্র-ছাত্রী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা তার সৎগতি কামনা করে পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দেন স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সিকদার, প্রধান শিক্ষক আবছার উদ্দীন, সাংবাদিক জয়নাল আবেদীন টুক্কু, সহকারী প্রধান শিক্ষক নুরুল হুদা, সিনিয়র শিক্ষক মওলানা নুরুল হাকিম, মওলানা নুরুল আলম কুতুবী, শিক্ষিকা রওশন আরা সিকদার রিনা,আবুল হোসাইন, নুরুল হাকিম, আহাম্মদ কবির, মোঃ শাহ আলম, মোঃ শাহীনসহ কচ্ছপিয়ার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। পরিবার সূত্রে জানা যায় আগামী কাল তার গ্রামের বাড়ীর স্থানীয় শশ্মানে তার মরদেহ দাহ করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •